রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। ছবি : সংগৃহীত

দ্বিতীয় মেয়াদে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রধানের দায়িত্বে এক বছর পার করলেন মো. আবদুল হামিদ। ২০১৮ সালের ২৪ এপ্রিল দ্বিতীয় মেয়াদে রাষ্ট্রপতি হিসেবে তিনি শপথ গ্রহণ করেন। দ্বিতীয় মেয়াদের পুরোটা সময় দায়িত্ব পালন করতে পারলে আবদুল হামিদই হবেন বাংলাদেশের সবচেয়ে দীর্ঘ সময়ের রাষ্ট্রপতি।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ অবশ্য রসিকতা করে বলেছিলেন, ‘বঙ্গভবনের জীবন তার কাছে কারাগারতুল্য।’ প্রথম মেয়াদে দায়িত্ব পাওয়ার পর এক অনুষ্ঠানে বঙ্গভবনের পরিবেশ নিয়ে তিনি বলেছিলেন, ‘জিয়াউর রহমানের আমলে জেলে ছিলাম। এখনও জেলে আছি। পার্থক্য আগে স্যালুট দিত না, এখন দেয়।’

দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নিলেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। ছবি : সংগৃহীত

২০১৩ সালে রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের মৃত্যুর পর বঙ্গভবনের বাসিন্দা হন মো. আবদুল হামিদ। ধরাবাঁধা নিয়মের ছকে থেকেও বিভিন্ন অনুষ্ঠান স্বভাবসুলভ হাস্যরসের মধ্যে দিয়ে পৌঁছে গেছেন মানুষের খুব কাছে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

২০১৪ সালের ২৬ এপ্রিল এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘বিদেশ সফরে হোটেলের ভাড়া কমিয়েছি। সিঙ্গাপুরে আমার হোটেলের ভাড়া ছিল ৬ হাজার সিঙ্গাপুরি ডলার। সেটা কমিয়ে ৬০০ ডলারে এনেছি। স্পিকার থাকার সময় একা যেতাম। এখনতো আর সে উপায় নেই। সফরসঙ্গীদের হোটেল ভাড়াও অর্ধেক করেছি।’

২০১৮ বছরের ৭ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের একবিংশতম রাষ্ট্রপতি পদে বর্তমান রাষ্ট্রপ্রধান মো. আবদুল হামিদকে নির্বাচিত ঘোষণা করে ইসি।

২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি হিসেবে প্রথমবার শপথ নেন আবদুল হামিদ। সংবিধানে সর্বোচ্চ দুই বার রাষ্ট্রপতি পদে থাকার সুযোগ থাকায় এটাই হবে তার শেষ মেয়াদ। আইনের ডিগ্রিধারী আবদুল হামিদ কিশোরগঞ্জ থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন সাতবার, স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেছেন দুই দফা।

আজকের পত্রিকা/আ.স্ব/