ভেলায় ভাসিয়ে মরদেহ নেয়া হচ্ছে কবরস্থানে। ছবি : সংগৃহীত

কক্সবাজারের রামুতে সেতু না থাকায় মৃতদেহ ভেলায় ভাসিয়ে দাফনের জন্য নেয়ার ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ১০ ফেব্রুয়ারি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা যায়, ওই এলাকার আব্দুল বারির ছেলে মনির আহম্মদের মৃত্যুর পর ভেলায় করে তার মরদেহ দাফনের জন্য নেয়া হচ্ছে।

কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার বৃহত্তর মনিরঝিলের সোনাইছড়ি গ্রাম। কবরস্থানে যেতে একটি কালভার্টের অভাব দীর্ঘদিনের। গ্রামে কোনো মানুষ মারা গেলে মৃতদেহ কবরস্থানে দাফনের জন্য কিভাবে ওই গ্রামের মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হয়-সেটা এই ছবিই প্রমাণ করে।

শুধু লাশ দাফনই নয়, স্থানীয় লোকজনের যাতায়াতেও চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

অবহেলিত মনিরঝিল গ্রামটিতে স্বাধীনতার পর থেকেই কোনো উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। সোনাইছড়ি খালের উপর একটি ছোট কালভার্টের অভাবে ওই এলাকাটি এখনো বিচ্ছিন্ন রয়ে গেছে।

রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের একাধিক ব্যক্তি জানান, এই গ্রামে মানুষের জন্য একটি ছোট সেতু বা কালভার্ট করে দিলে জনদুর্ভোগ আর হবে না।

রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুল মালেক বলেন, অবহেলিত মনিরঝিল গ্রামটিতে স্বাধীনতার পর থেকেই রাবার ডেম, নদীভাঙন রোধসহ কিছুটা উন্নয়নের ছোঁয়া লাগলেও সোনাইছড়ি খালের ওপর নির্মাণাধীন একটি ব্রিজের কাজ অর্ধসমাপ্ত থাকায় ওই এলাকাটি এখনো বিচ্ছিন্ন রয়ে গেছে।

এ বিষয়ে কক্সবাজার রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সারওয়ার কমল বলেন, বিষয়টি অবশ্যই দুঃখজনক। এ বিষয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আশাকরি দ্রুত সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।