এছাড়া এ দুর্ঘটনার দায় বিআরটিসি ও স্বজন পরিবহনকে নিতে হবে বলেও বলেছেন আদালত। ছবি: সংগৃহীত

সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারানো সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীবের পরিবারকে ৫০ লক্ষ টাকার ক্ষতিপূরণ দিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। ক্ষতিপূরণের জন্য দুই মাস সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া এ দুর্ঘটনার দায় বিআরটিসি ও স্বজন পরিবহনকে নিতে হবে বলেও জানিয়েছেন আদালত।

২০ জুন বৃহস্পতিবার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এ সময় বিচারকরা জানান, রাজীবের পরিবারকে যে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে তার ২৫ লাখ টাকা দেবে বিআরটিসিকে এবং বাকি ২৫ লাখ টাকা দেবে স্বজন পরিবহন।

রাজীবের মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারকে এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে জারি করা রুল নিষ্পত্তি করে বৃহস্পতিবারএ আদেশ দিয়েছে আদালত।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ৩ এপ্রিল রাজধানীর কারওয়ান বাজার এলাকায় দুই বাসের রেষারেষিতে হাত কাটা পড়ে কলেজছাত্র রাজীবের। ওই ঘটনা নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর ৪ এপ্রিল রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল। হাইকোর্ট এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের রুল জারিসহ রাজীবের চিকিৎসার খরচ দুই বাস মালিক বিআরটিসি ও স্বজন পরিবহনকে বহনের নির্দেশ দেন।

ওই রুল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় গত বছরের ১৬ এপ্রিল রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রাজীব।

আজকের পত্রিকা/সিফাত