দিনের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ ধরে না খাওয়া বা পান করার সত্ত্বেও, পর্যাপ্ত পুষ্টি নিশ্চিত করা আপনার পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ। ছবি: সংগৃহীত

দিনের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ ধরে না খাওয়া বা পান করার সত্ত্বেও, পর্যাপ্ত পুষ্টি নিশ্চিত করা আপনার পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ। সেক্ষেত্রে নিচের টিপসগুলো অনুসরণ করতে পারেন-

প্রচুর পানি পান করা

ইফতার থেকে সেহরি পর্যন্ত একজন ব্যক্তিকে আট থেকে দশ গ্লাস পানি পান করা অপরিহার্য। ছবি: সংগৃহীত

ইফতার থেকে সেহরি পর্যন্ত একজন ব্যক্তিকে আট থেকে দশ গ্লাস পানি পান করা অপরিহার্য। শুধু পানি পান করতে না চাইলে জুস বা দুধ পান করতে পারেন। তবে চা-কফি জাতীয় পানীয় এড়িয়ে চলাই উত্তম। এছাড়াও অতিরিক্ত লবন বা ঝাল জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলার চেষ্টা করতে হবে, কারণ এগুলো আপনাকে আরও তৃষ্ণার্ত করে তুলবে।

সেহরি বাদ দিবেন না

সেহরি না করে একেবারে ইফতার করা স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর হতে পারে। ছবি: সংগৃহীত

আরামের ঘুম নষ্ট করে রাতে উঠে সেহরি করতে অনেকেই অপছন্দ করেন। সেহরি না করে একেবারে ইফতার করা স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর হতে পারে। আর সারা দিন না খেয়ে থাকাও কষ্টের হয়ে যাবে।

ইফতারের খাবারে খেয়াল রাখুন

ইফতারে স্বাস্থ্যকর ও সুষম খাবার রাখার চেষ্টা করুন। ছবি: সংগৃহীত

সারা দিন না খাওয়ার ফলে ইফতারে অনেক কিছুই খাওয়ার ইচ্ছা হতে পারে। ইফতারে স্বাস্থ্যকর ও সুষম খাবার রাখার চেষ্টা করুন। আপনার ইফতারের খাবারটি তিন ভাগে ভাগ করা উচিত, যা এক চতুর্থাংশ কার্বোহাইড্রেট, এক চতুর্থাংশ প্রোটিন এবং সবজি দিয়ে আপনার পেট পূরণ করুন।

ফল ও সবজি খান

ফল এবং সবজি ভিটামিন এবং মিনারেলের মহান উত্স। ছবি: সংগৃহীত

ফল এবং সবজি ভিটামিন এবং মিনারেলের মহান উত্স। যেহেতু আপনি দীর্ঘক্ষণের জন্য রোজা রাখবেন, অসুস্থতা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য পর্যাপ্ত পুষ্টি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলি থাকা গুরুত্বপূর্ণ।

আজকের পত্রিকা/রিয়া/এআরকে