রংপুর সুগার মিলে শ্রমিক-কর্মচারীদের ‘ওভার টাইম’ কাজের ভাতা কর্তনের অভিযোগ।ছবি:সংগৃহীত

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলাধীন রংপুর সুগার মিলের শ্রমিক-কর্মচারীদের ‘ওভার টাইম’ কাজের ভাতার প্রায় ৫ লক্ষ ২০ হাজার টাকা কেটে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে ।

এতে করে সাধারণ শ্রমিক-কর্মচারীদের মাঝে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

জানা গেছে, দীঘদিন থেকে রংপুর সুগার মিলের শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা বন্ধ রয়েছে।

এ সুযোগে সুগার মিল ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন ও প্রশাসন যোগসাজস করে শ্রমিক কর্মচারীদের ‘ওভার টাইম’ কাজের শতকরা ৮ ভাগ কেটে নিয়ে ভাতা পরিশোধ করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সুগার মিলের এক শ্রমিক ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে জানান, দীর্ঘদিন থেকে শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা না হওয়ার সুযোগে সুগার মিল কর্তৃপক্ষ ওভার টাইম কাজের ৮ ভাগ ভাতা কেটে নিয়ে তাকে ভাতা প্রদান করেছে। ভাতার টাকা প্রদানের ক্ষেত্রে তাদের কাছ থেকে মুল রেজিষ্টারে প্রকৃত টাকার অংক বসিয়ে স্বাক্ষর নেয়া হয়েছে। কিন্তু কম্পিউটার কম্পোজ সীটে প্রদানকৃত টাকার স্বাক্ষর নেয়া হয়।

অন্য এক কর্মচারী জানান, ২১ মে বিকেলে ওভার টাইম কাজের টাকা পরিশোধ করা হয় ।

এতে প্রায় ৬৫ লক্ষ টাকা বিতরণ করার কথা থাকলেও শ্রমিক-কর্মচারীদের ওভার টাইম কাজের ৮ ভাগ ভাতা কর্তন করে সেখানে ৬০ লক্ষ টাকা বিতরণ করা হয়।

সুগার মিলের বয়লারে কর্মরত একজন শ্রমিক জানালেন, প্রশাসন ও ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের কাছে সাধারণ শ্রমিক-কর্মচারীরা জিম্মি হয়ে পড়েছে । ওই সিন্ডিকেটের ইশারা ইঙ্গিতে এখানে অনিয়মও নিয়মে পরিণত হয়েছে। তাই অসহায় শ্রমিকদের এসব বিষয়ে বলার কিছুই থাকে না ।

টাকা কর্তনের অভিযোগের ব্যাপারে সুগার মিলের জিএম (ফাইন্যান্স) আতিকুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ ধরণের ঘটনা তার জানা নেই- এ বিষয়ে তিনি ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন ।

পরে ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি তিনি জানেন না । তবে এখন এ বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ ব্যপারে সুগার মিলের ক্যাশিয়ার আখতারুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ম্যানেজমেন্ট যেভাবে টাকা বিতরণ করতে বলেছেন- সে মোতাবেকই তিনি টাকা বিতরণ করেছেন।

সুগার মিলের সাধারণ শ্রমিক-কর্মচারীরা ওভার টাইম কাজের শতকরা ৮ ভাগ টাকা কেটে নেয়ার বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্ত করে দেখার জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

আজকের পত্রিকা/ছাদেকুল ইসলাম রুবেল/গাইবান্ধা/রাফাত