সব পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবারই ওজন বৃদ্ধির জন্য দায়ী নয়। ছবি: সংগৃহীত

এটা অসম্ভব মনে হলেও সত্যি যে, কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো নিয়মিত খেলেও আপনার ওজন বাড়বে না। আবার কিছু খাবার অত্যাধিক খাওয়ার ফলে আপনাকে খাবারের প্রতি নিরুৎসাহিত করে ফেলতে পারে। যেহেতু অনেক খাবারই বেশি খেলে ওজন বৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে। আমরা কিন্তু এখানে খুব হালকা কোনো খাবারের কথা বলছি না। এসব খাবার খুব পুষ্টি সমৃদ্ধ হওয়া সত্ত্বেও আপনার ওজন বৃদ্ধি পাবে না এবং আপনি স্লিম থাকতে পারবেন। চলুন জেনে নিই, সেই খাবারগুলো সম্পর্কে।

সেদ্ধ আলু

সেদ্ধ আলু খুব পুষ্টিকর এবং এটি ওজন বৃদ্ধিতে নিষ্ক্রিয় থাকে। ছবি: সংগৃহীত

অনেকে উচ্চ মাত্রায় কার্বোহাইড্রেট থাকায় আলু এড়িয়ে যান। কিন্তু এটার প্রয়োজন নেই। আলু খুব পুষ্টিকর, যতক্ষণ এটা আগুনে পোড়ানো হয়। আলুতে প্রতিরোধী স্টার্চ থাকে যা পাচক সিস্টেমে দ্রবণীয় ফাইবারের মতো কাজ করে। যার ফলে সেদ্ধ আলু আপনি অধিক খেলেও ওজন বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা থাকে না।

ডিম

ডিম প্রয়োজনীয় ৯টি অ্যামিনো অ্যাসিড ধারণ করে। ছবি: সংগৃহীত

ডিম এবং বিশেষ করে ডিম ভাজা হার্ট অ্যাটাক, কোলেস্টেরল বৃদ্ধি ইত্যাদি তৈরি করতে পারে, এমন ধারণা মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়। ডিম প্রয়োজনীয় ৯টি অ্যামিনো অ্যাসিড ধারণ করে এবং শরীরে প্রোটিনের প্রতিনিধিত্ব করতে পারে। তাই বেশি করে ডিম খেতে পারেন। এতে ওজন বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই।

ওটমিল

ওজন স্বাভাবিক রাখতে ওটস খেতে পারেন। ছবি: সংগৃহীত

অনেকে ভাবতে পারেন, ওটমিল দামি কোনো পশ্চিমাদের খাবার। কিন্তু তথ্যটি সত্য নয়। প্রকৃতপক্ষে ওটমিল বেশ সস্তা। অল্প একটু ওটস দিয়ে একবেলার খাবার স্বাচ্ছন্দ্যে হয়ে যায় এবং পেটও ভরে। এছাড়া ওজন স্বাভাবিক রাখতে এবং দৈনন্দিন পুষ্টির চাহিদা মেটাতে দৈনিক খাদ্য তালিকায় ওটস যোগ করতে পারেন।

স্যুপ

স্বাস্থ্যকর স্যুপ খাওয়ার অভ্যাস করুন। ছবি: সংগৃহীত

অনেকে ভেবে থাকেন, স্যুপ খেলে পেট ভরে না। কিন্তু সত্যটি হচ্ছে, অনেক ধরনের স্যুপ রয়েছে যা খেলে ভারী খাবারগুলোর থেকেও অধিক পেট ভরবে। এছাড়া স্যুপ আপনাকে ২০ শতাংশ কম ক্যালোরি দেবে। দ্রুত ওজন কমাতে বাঁধাকপির স্যুপ বেশ কার্যকরী। রাতে বা দুপুরে নিয়মিত খাবার বাদ দিয়ে বাঁধাকপির স্যুপ খেতে পারেন।

আপেল

পেট ভরাট করতে আপেল খুব কার্যকরী। ছবি: সংগৃহীত

পেট ভরাট করতে আপেল খুব কার্যকরী। আপেলের প্রতি টুকরোতে ৮৫ ভাগ পানি থাকে এবং শরীরে আপেল প্রচুর ক্যালোরি সরবরাহ করে। প্রতি ১০০ গ্রাম আপেলে ৫২ কিলোক্যালোরি শক্তি রয়েছে।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/সিফাত/জেবি