কোনও খাবারের উপাদান সম্পর্কে জানাতে অ্যাপটিতে রয়েছে ফুড ফাইন্ডার অপশন। ছবি : সংগৃহীত

আমাদের মধ্যে অনেকের মধ্যে খাদ্য সচেতনতা কম। ফলে বাছবিচার থাকে কমই। উৎসব শেষে অবশ্য দৈনন্দিন জীবনযাপনে যখন ফিরবেন তখন কাজে দেবে একটি অ্যাপ। আপনার খাদ্যাভাসের তথ্য বিশ্লেষণে সহায়তা করবে এটি। কোন খাবারটি কতটুকু খাওয়া উচিত সে সম্পর্কে ধারণা পাবেন এ অ্যাপ থেকে। ধরুণ আপনি কোনো শপিং সেন্টারে গেলেন। সেখান থেকে পছন্দ খাবার কিনলেন। এতে কী কী উপাদান রয়েছে তা প্যাকেটের গায়ে বিস্তারিত লেখা নেই। তাহলে উপায়? আপনি চাইলে প্যাকেটের গায়ে থাকা বারকোড স্ক্যান করে জেনে নিতে পারেন খাবারটির উপাদানগুলো। এ জন্য আপনার ফোনে থাকতে হবে ‘ফুডোকেট’ নামের অ্যাপটি। শুধু খাবারের তথ্য নয়, অ্যাপটি হেল্থ ফিটনেসের তথ্যও জানাবে। ব্যবহারকারীর স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে সহায়তা করবে।

অ্যাপটির ফিচারগুলো দেখে নেওয়া যাক-

অ্যাপটি চালুর পর আপনার ওজন, উচ্চতা, লিঙ্গ,  জন্মতারিখ ইত্যাদি তথ্য দিতে হবে। তাহলে অ্যাপটি আপনাকে একটি ফুড চার্ট ঠিক করে দেবে। এট আপনার দৈনন্দিন খাদ্যাভাস ঠিক রাখার মাধ্যমে ওজন বাড়াতে বা কমাতে সাহায্য করবে। অ্যাপে থাকা হেল্থ ট্র্যাকার অপশন থেকে ব্যবহারকারী প্রতিদিন কতটুকু খাচ্ছেন. কতটুকু ক্যালরি বার্ন করছেন সেটির তথ্যও জেনে নিতে পারবেন। কোন খাবারের উপাদান সম্পর্কে জানাতে অ্যাপটিতে রয়েছে ফুড ফাইন্ডার অপশন। অ্যাপটির সাইডবারে এ অপশন পাওয়া যাবে। এতে ক্লিক করে খাবারের প্যাকেট থাকা বারকোর্ড স্ক্যান করলেই খাবারের উপাদান সম্পর্কে জানা যাবে। এতে প্রায় আড়াই লাখ খাবারের তথ্য রয়েছে। অনেক খাবারের উপাদানের তথ্য অ্যাপের সার্ভারে না থাকলে চাইলে তা যুক্ত করার সুবিধাও রয়েছে। স্বাস্থ্যকর বিভিন্ন খাবারের রেসিপি রয়েছে এই অ্যাপে। এ ছাড়া ডায়েট করার নানা টিপস রয়েছে। স্বাস্থ্য সচেতন মানুষের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য অ্যাপটিতে রয়েছে কমিনিউটি অপশন। সেখানে বিভিন্ন ব্যবহারাকারীর খাবার বিষয়ক লেখা পাওয়া যাবে এমনকি তাদের সঙ্গে যোগাযোগও করা যাবে। ৪.৪ রেটিং পাওয়া অ্যাপটি প্রায় ১০ লাখের বেশি ডাউনলোড হয়েছে গুলগ প্লেস্টোর থেকে। এ ঠিকানা থেকে অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারবেন। অন্যদিকে আইওএস ব্যবহারকারীরা অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারবেন।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর