সারাদিনের কাজের চাপ যৌনজীবন ব্যহত করে। ছবি : সংগৃহীত

অনেকে আছে যারা তাদের ক্যারিয়ার ও ভবিষ্যত জীবন নিয়ে খুব চিন্তিত থাকেন। যার ফলে তাদের যৌনজীবনে গুরুত্ব কম দেয়া হয় এবং তা নিম্নগামী হতে থাকে।  যৌন চাহিদা এড়িয়ে যাওয়া মানসিক ও শারীরিক কোনোটার জন্যেই উপকারী নয়। বরং এর নেতিবাচক দিক অনেক বেশি। জীবন ও সমাজের বিভিন্ন পর্যায়ের স্ট্রাগল যৌনজীবনে হতাশ যুগলের সংখ্যা বাড়িয়ে দিচ্ছে। এতে যৌনতা নিয়ে অনেকের মধ্যে বিভিন্ন প্রকার অসুস্থতা ও বিকৃতি দেখা যায়। এতে সমাজে অপরাধ ও বিশৃঙ্খলার পরিমাণ বাড়ে এবং সমাজ কাঠামোর মধ্যে থেকে নৈতিক আচরণ লোপ পায়।

তাই প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ার পাশাপাশি যৌন চাহিদা তৈরি হলে তা যথাযথ উপায়ে পূরণ করাই বুদ্ধিমানের কাজ। চলুন জেনে নিই, কী কী কারণে মানুষের মধ্যে যৌন চাপ সৃষ্টি হতে পারে-

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম

সোশ্যাল মিডিয়া আপনার যৌনজীবনে চাপ তৈরি করতে পারে। অন্যদের ছবি, মন্তব্য বা বিশেষ মুহূর্তের ছবি আপনার জীবনে দ্বেষ হিংসা বা প্রতিযোগিতার মনোভাব আনতে পারে।  ওয়াইওএলও বা ‘ইউ ওনলি লিভ ওয়ান্স’ এবং এফওএমও বা ‘ফিয়ার অফ মিসিং আউট’ এই দুটি চাপ আপনাকে মানসিক ভাবে বিদ্ধস্ত করতে পারে। শারীরিক নৈকট্য মন ভালো রাখারও একটা উপায়। মন ভালো রাখতে গিয়ে উপয়ায়টাই হারিয়ে ফেলবেন না।

কাজের স্ট্রেস

বেশিরভাগ মানুষই কাজের জন্য নয় বরং প্রতিযোগিতামূলক কাজের পরিবেশের চাপ ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এই নিরাপত্তাহীনতাই কোথাও আপনার ও আপনার সঙ্গীর যৌন জীবনেও বাধা তৈরি করছে।

আর্থিক স্ট্রেস

লোনের চাপ, ইএমআই, ক্রেডিট কার্ডের চাপ, খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থানের চিন্তা, মাসিক খরচ ইত্যাদি আপনার যৌন জীবন ব্যহত করতে পারে। আরামের খোঁজে আরও বেশি উপার্জনের দিকে দেখতে গিয়ে নিজের যৌনসুখ থেকেই বঞ্চিত হয়ে পড়বেন রোজ।

জীবনের স্ট্রেস

কর্মজীবন এবং আর্থিক জীবন ছাড়াও আপনার পারিবারিক জীবন যৌনতার উপর প্রভাব ফেলতে পারে। যদি দম্পতির মধ্যে অমীমাংসিত রাগ ও বিরক্তি থাকে, যদি স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে শিশুর স্বাস্থ্যের উদ্বেগের বিষয় থাকে তবে যৌন অনুভূতিগুলি গড়ে ওঠার সুযোগ কম থাকে।

জৈবিক স্ট্রেস

দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থতা, স্থূলতা, ক্লান্তি, অনিদ্রা, অত্যধিক মদ্যপান এবং ধূমপান, ফিটনেসের অভাব ইত্যাদি অন্যান্য শারীরিক চাপগুলিও যৌন জীবনের উপর প্রতিকূল প্রভাব ফেলে। আধুনিক সময়ে যারা ফাস্ট ফুড, প্যাকেজ করা খাবার, এবং বাইরে খাওয়া দাওয়া আর মদ্যপানে অভ্যস্ত হয়ে গেছেন তাঁরা একটু সতর্ক হোন। কোলেস্টেরল বেড়ে গেলে, বা ধূমপানের ফলে নিকোটিন ধমনীর ভিতরে আস্তরণ তৈরি করলে লিঙ্গে রক্ত ​​প্রবাহ সীমাবদ্ধ হয়ে আসে। যা যৌন কর্মক্ষমতাকেও প্রভাবিত করে।

ফ্যান্টাসি স্ট্রেস

বিভিন্ন পর্নোগ্রাফির ফ্যান্টাসিতেও সমস্যা আসতে পারে যৌনজীবনে। নিজের যৌনজীবন আর পর্দার যৌন জীবন আলাদা করতে শিখুন। ফ্যান্টাসি আপনার যৌন জীবনকে আরও অ্যাডভেঞ্চারাস করতে পারে, কিন্তু অতিরিক্ত কল্পনাপ্রবণ হয়ে চাপ বাড়িয়ে ফেলবেন না।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/