নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস সম্প্রতি ক্যালিফোর্নিয়ায় গ্রামীণ আমেরিকার দু’টি নতুন শাখা উদ্বোধন করেন। এর একটি লং বীচে, অপরটি লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে ২২৫ মাইল উত্তরে অবস্থিত ফ্রেসনোতে। লং বীচ শাখাটি অর্থায়ন করছে ইস্ট ওয়েস্ট ব্যাংক, আর ফ্রেসনো শাখাটি অর্থায়ন করছে ব্যাংক অব দ্য ওয়েস্ট। সেপ্টেম্বর ১৮ লং বীচ শাখার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইস্ট ওয়েস্ট ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা, চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী ডমিনিক এন.জি, গ্রামীণ আমেরিকার প্রধান নির্বাহী ও প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রিয়া জাং এবং ব্যাংক দু’টির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ।

ফ্রেসনো শাখাটির অর্থায়নকারী ব্যাংক অব দ্য ওয়েস্ট ইউরোপের অন্যতম বৃহত্তম ব্যাংক বিএনপি পারিবাসের পূর্ণ মালিকানাধীন একটি সাবসিডিয়ারী। সেপ্টেম্বর ১৯ নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূসের উপস্থিতিতে ফিতা কেটে সাড়ম্বরে শাখাটির উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ব্যাংক অব দ্য ওয়েস্টের প্রধান নির্বাহী বাংলাদেশী বংশোদ্ভ‚ত ভারতীয়-আমেরিকান নন্দিতা বকশী, গ্রামীণ আমেরিকার প্রধান নির্বাহী ও প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রিয়া জাং, উভয় ব্যাংকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং শহরের গণ্যমান্য নারী নেত্রী  ও উদ্যোক্তাগণ।

এই নতুন দু’টি শাখাসহ গ্রামীণ আমেরিকার শাখার সংখ্যা দাঁড়ালো ২৩টি। এগার বছর পূর্বে নিউ ইয়র্কের কুইন্সে অবস্থিত জ্যাকসন হাইট্সে তার কার্যক্রম শুরু করার পর প্রতিষ্ঠানটি এর পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ১৫টি নগরীতে ১২০,০০০ হাজার নি¤œ আয়ের মহিলাকে ১২৬ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ বিতরণ করেছে। চার বছরের বেশী বয়সী শাখাগুলোর সবকটিই আর্থিকভাবে স্বয়ংসম্পূর্ণ। গ্রামীণ আমেরিকার সার্বিক ঋণ আদায় হার ৯৯ শতাংশ।

প্রতিষ্ঠানটি আগামী ৫ বছরে ২৫০,০০০ দরিদ্র মার্কিন নারীর নিকট ৪০০ কোটি ডলার ঋণ বিতরণের পরিকল্পনা করছে।

উল্লেখ্য যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মোট ব্যাংক ঋণের মাত্র ৪ শতাংশ নারীদের কাছে পৌঁছায় এবং দেশটির প্রতি ৪টি গৃহস্থালীর ১টি ব্যাংকিং সুবিধা থেকে পুরোপুরি বা আংশিক বঞ্চিত।

নতুন এই দু’টি শাখাসহ ক্যালিফোর্নিয়ায় গ্রামীণ আমেরিকার শাখার সংখা দাঁড়ালো ৬টিতে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জনসংখ্যা জরিপের তথ্য অনুযায়ী দেশটিতে দারিদ্রের হার সবচেয়ে বেশী ক্যালিফোর্নিয়ায়। এখানে গ্রামীণ আমেরিকার ঋণীর সংখ্যা ২২,০০০ যাঁদের নিকট প্রতিষ্ঠানটির মোট বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ১৯.২৩ কোটি ডলার।

লং বীচ শাখাটি উদ্বোধন কালে ইস্ট ওয়েস্ট ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী ডমিনিক এন.জি দারিদ্র বিমোচনে প্রফেসর ইউনূসের অন্তর্দৃষ্টি ও নিরলস প্রচেষ্টার ভ‚য়শী প্রশংসা করেন। ইস্ট ওয়েস্ট ব্যাংক গ্রামীণ আমেরিকার এই শাখাটি চালু করতে প্রায় ২০ লক্ষ মার্কিন ডলার সহায়তা দিয়েছে। বয়লে হাইট্স ও পিকো ইউনিয়নের পর লং বীচের এই শাখাটি ক্যালিফোর্নিয়ায় গ্রামীণ আমেরিকার তৃতীয় শাখা।

ফ্রেসনো শাখা উদ্বোধনের সময় ব্যাংক অব দ্য ওয়েস্টের প্রধান নির্বাহী নন্দিতা বকশী গ্রামীণ আমেরিকার সাফল্য এবং এর সাথে সহযোগিতার জন্য প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনাকে অভিনন্দন জানান। সেন্ট্রাল ভ্যালিতে ফ্রেসনোই গ্রামীণ আমেরিকার প্রথম শাখা। ফ্রেসনো শাখা প্রতিষ্ঠায় ব্যাংক অব দ্য ওয়েস্ট ও বিএনপি পারিবাস ৫ লক্ষ মার্কিন ডলার প্রদান করেছে। এছাড়া ফ্রেসনো এরিয়া হিসপানিক ফাউন্ডেশন শাখাটির অফিস স্থাপনের জন্য স্থান সরবরাহ করেছে।

ব্যাংক অব দ্য ওয়েস্ট গ্রামীণ আমেরিকাকে তার প্রাতিষ্ঠানিক লক্ষ্য অর্জনে সহায়তা করতে এর সাথে ২০ লক্ষ মার্কিন ডলারের একটি সম্প্রসারিত পার্টনারশীপ ঘোষণা করেছে। ফ্রেসনোয় বসবাসকারী প্রায় ৭৬,০০০ দরিদ্র নারীকে আর্থিক স্বচ্ছলতা অর্জনে এই শাখাটি প্রয়োজনীয় পুঁজি সহায়তা দেবে। গ্রামীণ আমেরিকা প্রথম বছরে এখানকার ৫০০ দরিদ্র নারী উদ্যোক্তাকে ৭২৭,০০০ ডলার ক্ষুদ্রঋণ সরবরাহ করবে। আগামী ৫ বছরে ফ্রেসনোর ৭,০০০ দরিদ্র নারীকে ২.১ কোটি ডলার ঋণ বিতরণের পরিকল্পনা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।

এছাড়া নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস ফ্রেসনো এরিয়া হিসপানিক ফাউন্ডেশন আয়োজিত ৫ম অ্যানুয়াল পাওয়ার অব উইমেন ইন বিজনেস কনফারেন্সে যোগ দেন। ফ্রেসনো এরিয়া হিসপানিক ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী ডোরা ওয়েস্টারল্যান্ড সম্মেলনে একটি প্যানেল আলোচনা সঞ্চালনা করেন যেখানে যোগ দেন গ্রামীণ আমেরিকার প্রধান নির্বাহী ও প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রিয়া জাং, ব্যাংক অব দ্য ওয়েস্টের প্রধান নির্বাহী নন্দিতা বকশী এবং প্রফেসর ইউনূস। সম্মেলনে যোগদানকারী ফ্রেসনো নগরীর মেয়র লী ব্র্যান্ড ফ্রেসনোতে গ্রামীণ আমেরিকার কর্মসূচি চালু করার জন্য প্রফেসর ইউনূসকে অভিনন্দন জানান। তিনি এই কর্মসূচিতে তাঁর সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন এবং দরিদ্র কৃষি শ্রমিক অধ্যুষিত এই নগরীতে গ্রামীণ আমেরিকার আরো শাখা স্থাপনের অনুরোধ জানান।

এই নারী সম্মেলনে সেন্ট্রাল ভ্যালি এরিয়ার প্রায় ৫০০ মহিলা অংশ নেন যাঁদের অধিকাংশই ছিলেন অশ্বেতাঙ্গ নারী উদ্যোক্তা।

আজকের পত্রিকা/এসএমএস