যশোরে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবসে ট্রাকের ধাক্কায় মঈদুল ইসলাম (১৩) নামের এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়কের শানতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মঈদুল যশোর দাউদ পাবলিক স্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ও পিরোজপুর জেলার তপসিডাঙ্গা এলাকায় মাহাবুব রহমানের ছেলে। তার বাবা যশোর ক্যান্টনমেন্ট সেনাবাহিনীতে কর্মরত।

নিহত পিতা মাহাবুব হোসেন জানান, বুধবার সকালে মঈদুল বাইসাইকেলে স্কুলে যাচ্ছিলো। শানতলা এলাকায় পৌঁছলে যশোর থেকে কালীগঞ্জগামী একটি ট্রাক তাকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আহমেদ তারেক শামস জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়।

যশোর কোতয়ালি মডেল থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, ট্রাকের ধাক্কায় স্কুলছাত্র নিহতের ঘটনায় ট্রাকটি জব্দ করা যায়। তবে পালিয়ে গেছে চালক ও সহকারী।

এদিকে ‘জীবনের আগে জীবিকা নয়, সড়ক দুর্ঘটনা আর নয়’ এই শ্লোগানে যশোরে পালিত হয়েছে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস। দিবসটি উপলক্ষে সকালে কালেক্টরেট চত্বর থেকে শোভাযাত্রা বের করা হয়। এটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা পরিষদ মিলানায়তন (বিডিহলে) গিয়ে শেষ হয়। এখানে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আবুল লাইছ’র সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন- যশোরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রফিকুল হাসা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম রব্বানী, যশোর জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি আলী আকবর প্রমুখ। আলোচনা সভায় গাড়ি চালক, হেলপার, বাস, ট্রাক মালিক সমিতির নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এইচ আর তুহিন/যশোর