ছবি : প্রতীকী। সংগৃহীত

জমি নিয়ে বিরোধের জেরে যশোরের মণিরামপুরের বিজয়রামপুর গ্রামে ১৯ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার বিকেলে বোনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে ভাই আবদুর রহিম। এ ঘটনায় ঘাতককে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত নূরজাহান উপজেলার খেদাপাড়া কারিগর পাড়ার আলাউদ্দিনের স্ত্রী। ঘাতক আবদুর রহিম উপজেলার গালদা গ্রামের এনায়েত আলীর ছেলে। বছর দশেক আগ থেকে তিনি পৌরসভার বিজয়রামপুর এলাকায় বসবাস করছেন।

রহিমের স্ত্রী সালমা বেগম বলেন, বিশ বছর আগে রহিম তার বাবার কাছ থেকে দুই বিঘা জমি লিখে নেন। পরে আবার সেই জমি বাবার কাছ থেকে রেজিস্ট্রি করে নেন নূরজাহান। এ নিয়ে ভাই বোনের মধ্যে বিরোধ চলছিল।

মঙ্গলবার বিকালে এর জের ধরে নূরজাহানের সঙ্গে রহিমের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে রহিম নূরজাহানকে ঘরের মধ্যে ধারালো অস্ত্র (গাছি দা) দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করে।

এ সময় নূরজাহানের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যার দিকে তার মৃত্যু হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. নজরুল ইসলাম বলেন, জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেয়া অবস্থায় নূরজাহানের মৃত্যু হয়। নিহতের বাম পা, দুই বাহুসহ মাথায় কোপের চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে।

মণিরামপুর থানার ওসি (তদন্ত) এসএম এনামুল হক বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে কুপিয়ে হত্যা করেছে তার ভাই আবদুর রহিম। রহিমকে আটক করা হয়েছে। হত্যার কাজে ব্যবহৃত ধারালো অস্ত্রটি (গাছি দা) উদ্ধার করা হয়।

এইচ আর তুহিন/যশোর