দিল্লির বায়ু দূষণ নিয়ে বেশ কিছু দিন থেকেই ব্যাপক আলোচনা চলছে। এরমধ্যে দুই দলের ক্রিকেটাররা মুখোশ পরে অনুশীলন করেছেন। ভেন্যু পরিবর্তনে চাপ থাকলেও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড কোন কথায় কান দেয়নি। তারা নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল থাকে।

তবে আজ দিল্লির বায়ু দূষণের মাত্রা ভয়াবহ পর্যায়ে পৌঁছেছে। সন্ধ্যা নাগাদ এর মাত্রা কোথায় গিয়ে ঠেকবে বলা মুশকিল।

কিছুদিন আগে দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামের নাম পাল্টে রাখা হয়েছে অরুণ জেটলি স্টেডিয়াম। স্টেডিয়ামের না বদল হলেও মাঠে স্বস্তি ফেরেনি বায়ু দূষণের কারণে। দূষণ এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে মানুষের স্বাভাবিক জীবন যাপনও কষ্টকর হয়ে পড়েছে।

এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) অনুযায়ী, ০ থেকে ৫০ পর্যন্ত বাতাসের মান খুবই ভালো। ৫০ থেকে ১০০ পর্যন্ত হলে তুলনামূলক কম ভালো। যেসব রোগীদের শ্বাসকষ্ট আছে ১০১ থেকে ১৫০ মান তাদের জন্য কষ্টকর। ১৫১ থেকে ২০০ হলে অস্বাস্থ্যকর। ২০১ থেকে ৩০০ পর্যন্ত অতিমাত্রায় অস্বাস্থ্যকর। ৩০১ থেকে ৫০০ পর্যন্ত হলে তা ক্ষতিকর।

আজ সকাল দশটায় দিল্লিতে একিউআই রেকর্ড করা হয়েছে ৬২৫। আর সকাল ১১টায় তা দাঁড়ায় ৮৩২ এ। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৩২টা ফ্লাইট বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে দিল্লি এয়ারপোর্ট কর্তৃপক্ষ।