বনসাই জগতের প্রতিষ্ঠাতা বনসাই শিল্পী মো. সুলাইমানের প্রথম বার্ষিক এর প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঋতুর রানী শরতের মুন্ধতা নিয়ে ‘বনসাই জগত’ এবং ‘সিমুড ইভেন্টস’ এ আয়োজন করেছে। ৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার গুলশানের ক্যাডেট কলেজ ক্লাবে প্রদর্শনী উদ্ধোধন করেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, ‘বনসাই একটি শিল্প। এই শিল্পকে আমাদের কাছে তুলে ধরার জন্য বনসাই শিল্পী মো. সুলাইমানকে আন্তরিক অভিনন্দন। বাংলাদেশে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে বনসাই চাষ করে লাভবান হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।’

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে বনসাই জগতের প্রতিষ্ঠাতা বনসাই শিল্পী মো. সুলাইমান বলেন, ‘আমার অবসরে সঙ্গী বনসাই। বনসাইকে নিজের সন্তানের মতো লালন-পালন করে বড় করে তুলি। একটি পরিপূণ বনসাই দেখলে আমার মন ভরে যায়।’ তিন দিনের এই আয়োজনের ৩০০টি বনসাই প্রদর্শন করা হবে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়নগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ হারুন অর রশিদ, বাংলাদেশ বনসাই সোসাইটির সভাপতি নামজা শফিক, গুলশান ক্যাডেট কলেজ ক্লাবের সভাপতি গ্রপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মাদ আলামগীর, সিমুডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. জাহিদুর রশিদ সুমন সহ বনসাই জগত পরিবারের সদস্যরা।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বনসাই জগতের সাধারণ সম্পাদক ডা. এ কে এম শাহরিয়ার। অনুষ্ঠান উপলক্ষে একটি ম্যাগাজিন প্রকাশ করা হয়। এছাড়া চারদিনের এ আয়োজনে বনসাই শিল্পী মো. সুলাইমান বনসাই প্রিয় মানুষের কাছে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন। প্রদর্শনীটি ৬ অক্টোবর রবিবার শেষ হয়েছে।

আজকের পত্রিকা/সিফাত