গুজরাটে একতি বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন। ছবি : সংগৃহীত

নরেন্দ্র মোদির রাজ্য খ্যাত ভারতের গুজরাটের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী সুরাতের একটি একটি কোচিং সেন্টারে ভয়াবহ আগুন লেগেছে। এতে এখন পর্যন্ত ১৯ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। নিহতদের বেশির ভাগ ওই ভবনের একটি কোচিং সেন্টারের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। নিহতদের অধিকাংশের বয়স ১৪ থেকে ১৭ বছর বলে জানিয়েছে ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যম। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, ২৪ মে শুক্রবার বিকেলে আবাসনের তিন তলায় এই আগুন লাগে। কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় গোটা এলাকা। দমকলের ১৮টি ইউনিট আগুন নেভাতে কাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রাণ বাঁচাতে তিন তলার জানলার কাচ ভেঙে ঝাঁপ দিতে দেখা যায় বেশ কয়েকজনকে। পুলিশ এবং দমকলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। শেষ পাওয়া খবর পর্যন্ত ভেতরে আটকে রয়েছে কমপক্ষে ৩০ জন।

ঘটনার পরই বিষয়টি নিয়ে তৎপর হয় গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি। তিনি গোটা বিষয়টি তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন। আগুনে মৃত শিক্ষার্থীদের পরিবারকে চার লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দিয়েছেন। সুরাতের এই আগুনের ঘটনা নিয়ে টুইট করে ক্ষতিগ্রস্ত ছাত্রদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/আ.স্ব  /জেবি