ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেছে পুলিশ। ১৩ অক্টোবর রবিবার দুপুরে তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়।

এ সময় পল্লবী থানায় র‌্যাবের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও থানার উপ-পরিদর্শক নূরে আলম। রবিবার বেলা ৩টায় ঢাকা মহানগর হাকিম আতিকুল ইসলামের আদালতে এ মামলার শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার দুপুরে কর্নেল ইসহাক ও রাতে মেজর হাফিজকে আটক করে র‌্যাব-৪। পরে র‌্যাবের মামলায় রাজধানীর পল্লবী থানায় তাদের সোপর্দ করা হয়। কর্নেল ইসহাক খালেদার জিয়ার নিরাপত্তা টিম চেয়ারপারসনস সিকিউরিটি ফোর্সের প্রধান কর্মকর্তা। এর মধ্যে শনিবার ঢাকা মহানগর হাকিম নিভানা খায়ের জেসি ইসহাকের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৭, ৩১ ও ৩৫ ধারায় র‌্যাব-৪ এর এসআই (নিরস্ত্র) আবু সাঈদ একটি মামলা করেছেন। মামলা নং ৪২। র‌্যাব-৪ রাতে আটক দুজনকে থানায় সোপর্দ করে। দায়ের করা ওই মামলায় পরে তাদের দুজনকেই গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

তাদের বিরুদ্ধে পরস্পর যোগসাজশে সরকার ও সরকারি সংস্থা সম্পর্কে মেইলে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য আদান-প্রদানের অভিযোগে এই মামলা করেছে র‌্যাব।

আজকের পত্রিকা/সিফাত