বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের অবিসংবাদী নেতা মার্টিন লুথার কিং জুনিয়রের ৯১তম জন্মদিনকে স্মরণ করার উদ্দেশ্যে মুন্নু ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ১৫ জানুয়ারি বুধবার উদযাপিত হয়েছে ‘মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র দিবস।’ মোঃ মাহাদি হাসানের নির্দেশনায় এবং অ্যাসিসট্যান্ট প্রফেসর মোঃ গোলাম নূরের ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠানটিতে কিং জুনিয়রের স্বপ্নকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছিল।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির ভাইস-প্রিন্সিপাল মোহাম্মাদ আমিনুর রাহমান তার স্বাগত বক্তৃতার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন।শিক্ষার্থীদের চেতনার মাঝে ন্যায়, নীতি, সমতা ও স্বপ্ন সঞ্চারের উদ্দেশ্যে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে মুন্নু ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ।

সপ্তম, অষ্টম, নবম ও দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে কিং জুনিয়রের জীবনীর সংক্ষিপ্ত উপস্থাপনা ছিল অনুষ্ঠানটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় অংশ। জীবনীতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছিল কিং জুনিয়রের জীবন, অর্জন এবং ইতিহাসের পাতায় ঠাঁই করে নেওয়া তার অসাধারণ বক্তৃতা ‘আই হ্যাভ অ্যা ড্রিম’র চুম্বকাংশ। উপস্থাপনার শেষাংশে শিক্ষার্থীদের সম্মিলিত স্বরে ধ্বনিত হয় সিভিল রাইট মুভমেন্টের স্তবক সংগীত ‘উই শ্যাল ওভারকাম।’

প্রতিষ্ঠানের প্রিন্সিপাল নাসরনি আখতার তার উদ্দীপনাময় বক্তৃতার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানেন। তিনি উল্লেখ করেন, ‘আমরা আজও মার্টিন লুথার কিংকে স্মরণ করি এবং প্রশস্তি গাই তার স্বপ্নের, যার জন্য তিনি উৎসর্গ করেছিলেন তার জীবনকে। এমন আত্মত্যাগের জন্য তার মতো মানুষরা আজও অমর হয়ে আছেন এবং থাকবেন।’ শিক্ষার্থীদের প্রতি তিনি নির্দেশ দেন যে তারা যেন তাদের জীবনপ্রবাহে কিংয়ের আদর্শরে সংমিশ্রণ ঘটিয়ে দেশ ও জাতির উন্নতিতে অবদান রাখতে পারে।

শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সম্মলিতি অংশগ্রহণের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটির কার্যক্রমের সফলতা ও মর্যাদা ফুটে উঠে।

আজকের পত্রিকা/সিফাত