‘রিফাত হত্যায় মিন্নি জড়িত থাকার দায় স্বীকার করেছেন’, এমন কোনো কথা বলেননি বলে দাবি করেছেন বরগুনার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মারুফ হোসেন।

তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, একজন আসামি রিমান্ডে থাকা অবস্থায় আমি এ কথা বলতে পারি না। আমাকে কেউ কোড করে যদি নিউজ করে তবে তা সঠিক না। এটা ঠিক হয়নি।

একাধিক গণমাধ্যমে তাকে কোড করে প্রকাশিত সংবাদ প্রসঙ্গে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ১৮ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেলে স্থানীয় সাংবাদিকদের এসপি মারুফ এসব কথা বলেন।

বরগুনার পুলিশ সুপার বলেন, রিমান্ডে মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় রিফাত হত্যায় তার জড়িত থাকার প্রাথমিক সত্যতা প্রতীয়মান হয়েছে। এরপর তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে পাঁচদিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। রিমান্ড শেষে মিন্নিকে ফের আদালতে তোলা হবে।

১৬ জুলাই দুপুরে মিন্নিকে তার বাসা থেকে বরগুনা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে নেওয়া হয়। তখন পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, রিফাত হত্যা মামলার প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষী মিন্নি। মামলার স্বার্থে তাকে ডেকে আনা হয়েছে।

আজকের পত্রিকা/এমএআরএস