মানিকগঞ্জে শ্রমিকলীগের অভ্যন্তরীন কোন্দলের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত হয়েছে মানিকগঞ্জ পৌর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রুস্তম হোসেন। আহত রুস্তম হোসেন কে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রোববার আনুমানিক রাত আটটার দিকে মানিকগঞ্জ বাসট্যান্ড এলাকার মমতাজ চক্ষু হাসপাতালের সামনে যুবলীগ নেতার ওপর অতক্রিত হামলা চালানো হয়।

আহত রুস্তমের চাচা মানিকগঞ্জ জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আব্দুল জলিল জানান, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জেরে আমার ভাতিজাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্যেশে জেলা শ্রমিকলীগের সাবেক সভাপতি বাবুল সরাকারের অনুসারীরা অন্যায়ভাবে আমার ভাতিজাকে যখম করেছে। রানা, উজ্জ্বল, আজাদসহ প্রায় দশজন চাপাতি, ছুড়ি এবং লাঠিশোঠা দিয়ে অতর্কিতভাবে রুস্তমকে আঘাত করে। রুস্তম বাচার জন্য পালাতে গেলে চাপাতি দিয়ে মাথায় এবং পিঠে আঘাত করে। মার খেতে খেতে রুস্তম অঙ্গান হয়ে পড়ে, লোকজানের উপস্থিতি টের পেয়ে দুবৃত্তরা পালিয়ে যায়। আমরা অতি দ্রুত এই নিষংসতার বিচার দাবি করি এবং আসামীদের সর্বচ্চ শাস্তির দাবি জানাই।

এ সয়য় যুবলীগ নেতা রুস্তমকে দেখতে হাসপাতালে জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক সুলতানুল আজম খান আপেল, শ্রমবিষয়ক সম্পাদক লিয়াকত আলী ভান্ডারী, পৌর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম জাহিদসহ নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে মানিকগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ রকিবুজ্জামান জানান, অভিযোগ প্রমাণিত হলে দ্রুত সময়ের ভিতরে তদন্দ করে দোষীদের জন্য আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শাহজাহান বিশ্বাস/মানিকগঞ্জ