প্রধান শিক্ষক

মানিকগঞ্জের দৌলতপুর সরকারী পিএস মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে তার বাসার গেটের সামনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি এবং বাংলাদেশের মানচিত্র সম্বলিত ব্যানার বিছিয়ে পদদলিত করে অসম্মান করার অভিযোগ উঠেছে। দৌলতপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ইমরান হোসেন বুলবুল বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, দৌলতপুর সরকারী পিএস মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান তার বাসার গেটের সামনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি এবং বাংলাদেশের মানচিত্র সম্বলিত ব্যানার বিছিয়েছেন। বেশ কয়েকদিন ধরে সেই ব্যানারে জুতা পরে পায়ে হেটে ওই শিক্ষক ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বাসায় প্রবেশ করেন। এ ঘটনা জানাজানি হলে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ইমরান হোসেন বুলবুল বাদী হয়ে শনিবার রাতে দৌলতপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এসময় থানায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংঠনের শতাধিক নেতা কর্মী।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, আমার মানসম্মান ক্ষুন্ন করার জন্য একটি কুচক্রী মহল আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে হয়রানী করার চেষ্টা করছে।

এ বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস জানান, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি এবং বাংলাদেশের মানচিত্র সম্বলিত ব্যানার বিছিয়ে তার ওপর দিয়ে জুতা পরে পায়ে হেটে ওই প্রধান শিক্ষক ও তার পরিবারের লোকজন ঘরে প্রবেশ করে। আর এভাবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং দেশকে অসম্মান করে চরম অন্যায় করেছে। তাই আমরা এই প্রধান শিক্ষকের অপসারণসহ কঠোর শাস্তির দাবী জানাই।

এ বিষয়ে দৌলতপুর থানার ওসি সুনীল কর্মকার জানান, লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্ত চলছে। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পেলে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

-ইউসুফ আলী