৫ জুলাই থেকে ১২ ডিসেম্বর। মাঝে পেরিয়ে গেছে ১৫৯ দিন। দেশের ক্রিকেটে ঘটেছে বড় বড় ঘটনা। তবে ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ছিলেন অনেকটা আড়ালে।লর্ডসে পাকিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচে নেমেছিলেন তিনি। মাঠের ক্রিকেটে ওই শেষবার দেখা গিয়েছিল তাকে। বিশ্বকাপের পর শ্রীলঙ্কা সফরে যেতে পারেননি চোটের কারণে। এরপর আর ওয়ানডে ছিল না বাংলাদেশের। ক্রিকেট থেকেও অনেকটাই দূরে সরে মাশরাফি ব্যস্ত ছিলেন রাজনীতির মাঠে। বিশ্বকাপের পারফম্যান্স, অবসর নিয়ে বিতর্কের জেরে নিজেকে গুটিয়েও রেখেছিলেন এই সময়ে।

বিশ্বকাপের পর বিপিএল। লম্বা বিরতির পর আবার মাশরাফি ফিরলেন মাঠের ক্রিকেটে। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে ঢাকা প্লাটুনের হয়ে টস করেছেন বিপিএলের সফলতম অধিনায়ক। রাজশাহী রয়্যালসের আন্দ্রে রাসেলের সঙ্গে টস হেরে তার দল পেয়েছে ব্যাটিং। মাঝের এই সময়টায় মাশরাফি কোন পর্যায়েই কোন ম্যাচ খেলেননি, এমনকি অধিকাংশ সময় অনুশীলনেও ছিলেন অনুপস্থিত।