‘এভারেস্টের যে অংশটি ‘ডেথ জোন’ হিসেবে পরিচিত, সেখানে একই সময়ে প্রায় ৩২০ জন মানুষ একসাথে উপস্থিত। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বত শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টে আরোহণের সম্মেলনে অতিরিক্ত মানুষের সারির মাঝে আটকা পড়ে মারা গেছেন দুইজন পর্বতারোহী। তাদের মধ্যে একজন হলেন ভারতীয় নাগরিক অঞ্জলি কুলকারনি (৫৫) ও অন্যজন হলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ও পর্বতারোহী ডোনাল্ড লিন ক্যাশ (৫৫)।

পর্বতারোহী নির্মল পূজরা ২২ মে বুধবার তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে মাউন্ট এভারেস্টের উপর সম্মেলনে আগত পর্বতারোহীদের ছবি শেয়ার করেন। পোস্টে তিনি উল্লেখ করেন, ‘এভারেস্টের যে অংশটি ‘ডেথ জোন’ হিসেবে পরিচিত, সেখানে একই সময়ে প্রায় ৩২০ জন মানুষ একসাথে উপস্থিত।‘

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সিএনএনের বরাত দিয়ে অঞ্জলি কুলকারনির ছেলে শান্তনু কুলকারনি জানান, ‘সম্মেলনের সর্বশেষ ক্যাম্প, যা ৮০০০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত, সেখানে মানুষের ‘ট্র্যাফিক জ্যাম’ এ আটকা পড়ে যান তার মা।‘

তবে অতিরিক্ত মানুষের উপস্থিতি ও মাউন্ট এভারেস্টে মানুষ সৃষ্ট ‘ট্র্যাফিক জ্যাম’ এর দরুন পর্বতারোহীদের মৃত্যুর বিষয়টি ‘ভিত্তিহীন’ বলে উড়িয়ে দিয়েছেন নেপালের পর্যটন বিভাগের মহাপরিচালক ড্যানডারাজ ঘিমিরে।

ড্যানডারাজ ঘিমিরে বলেন, ‘এবারে পর্বতে আরোহণের আবহাওয়া একেবারেই ভালো যাচ্ছে না। টানা বেশ কয়েকদিন আবহাওয়া খারাপ থাকার পর ২২ মে তে আবহাওয়া ভালো হলে একসাথে ২০০ জনের মতো পর্বতে ওঠার যাত্রা শুরু করে। এখানে মৃত্যুর মূল কারণ অতিরিক্ত উচ্চতাজনিত অসুস্থতা, যা এবারে অনেক পর্বতারোহীদের সাথেই হয়েছে।’

আজকের পত্রিকা/বিএফকে/এআরকে/জেবি