মরিচের গুড়া চোখে ছিটিয়ে ছোট ভাইকে জখম করলো বড় ভাই

ভোলা বোরহানউদ্দিন উপজেলার বড়মানিকা ইউনিয়নে উত্তর কুড়ালিয়া ৪নং ওয়ার্ডের মোল্লা বাড়ীর সামনে পল্লী বিদ্যুৎ এর খুটি হতে সংযোগ নেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে মরিচের গুড়া ছিটিয়ে হামলা করে ইসমাইল মোল্লা (৪৮) নামের কৃষককে কুপিয়ে জখম করে আ: মন্নান মোল্লা গংরা।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় মোল্লা বাড়ীর সামনে পাকা রাস্তার উপর এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বোরহানউদ্দিন থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আহত ইসমাইল মোল্লা জানান, পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে আবেদন করলে আমার নামে মিটার পাশ করেন। আমার বাড়ীর সামনে পাকা রাস্তার উপরের খুঁটি থেকে আমাকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার জন্য পল্লী বিদ্যুৎর এর কর্মকর্তারা একাধিক বার আসে। কিন্তু আমার আপন বড় ভাই আ: মন্নান ওই খুঁটি থেকে আমাকে বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে দেয়নি। ওই খুঁটি হতে বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে হলে তার খরচ বাবদ ২০ হাজার টাকা দাবী করেন।

এ ঘটনাটি স্থানীয়রা বড় ভাইকে বুঝিয়ে ওই খুঁটি থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার জন্য বুধবার সকালে পল্লী বিদ্যুৎ এর লোকজন নিয়ে যায়। ওই লোকজনের উপস্থিতিতে হঠাৎ আমার বড় ভাই আ: মন্নান তার ছেলে সবুজ (২৫), তার স্ত্রী শহিদা (৪৭), মেয়ে পারভীন (২৭), তার পুত্র বধূ খায়রুন (২৫) আমার চোখে মুখে মরিচের গুড়া মেরে দেশীয় লাটি সোটা নিয়ে হামলা করে। আমার মাথায় দা দিয়ে কুপ দিয়ে মারাত্মক জখম করে।

স্থানীয়রা মরিচের গুড়া জন্য আমাকে প্রথমে উদ্ধার করতে পারেনি। ওরা আমাকে মেরে ফেলতে চেয়েছে। আমি বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছি।

এ ঘটনায় ইসমাইল মোল্লার মেয়ে টিটু বেগম বাদী হয়ে বোরহানউদ্দিন থানায় মামলা দায়ের করেন।

এব্যাপারে আ: মন্নান গংদের সাথে আলাপ করার চেষ্টা করলে তাদের কাউকে পাওয়া যায়নি।

এব্যাপারে বোরহানউদ্দিন পল্লী বিদ্যুৎ এর ইনচার্জ মো: মাসুদ বলেন, বর্তমান সরকারের নির্দেশ মতে আমরা মানুষের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছানোর লক্ষে কাজ করছি। তিনি বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে টাকা খরচ করছেন যে কথা বলছে তাহা সম্পূর্ণ মিথ্যা। শুধু মাত্র ৫/৬ শত টাকা খরচে বিদ্যুৎ এর নতুন সংযোগ দেয়া হচ্ছে। খুঁটি থেকে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গেলে কেউ বাঁধা দিতে পারবে না।

এ ব্যাপারে এ মামলার তদন্তকারী অফিসার এস.আই হেমায়েত জানান, এ মামলার তদন্ত চলছে এবং অভিযুক্ত আসামীরা পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

-আবদুল মালেক