গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে ঢাকাবাসী। ছবি : সংগৃহীত

আবারও ১৯ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে আবারও রাজধানীর বেশ কিছু এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখবে তিতাস গ্যাস কোম্পানি। মেট্রোরেলের কাজের কারণে টানা ১২ ঘণ্টা গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখা হবে বলে জানিয়েছে তিতাস। সংস্থাটি জানিয়েছে, ১৯ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার রাজধানীর উত্তরা, গুলশান, বনানী, যাত্রাবাড়ি এবং মিরপুরের কিছু অংশ ব্যতীত অন্য সব জায়গায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

২৪ ঘণ্টারও বেশি সময় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকার পর ১৯ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার আবারো একই ভোগান্তিতে পড়তে যাচ্ছেন ঢাকার বাসিন্দারা।

নির্মাণ শেষ না হওয়া পর্যন্ত মেট্রোরেলকে এক বিষফোড়া হিসেবেই দেখছেন রাজধানীবাসী। শহরের এক মাথা থেকে আরেক মাথায় চলছে খোড়াখুড়ি। রাস্তা হয়েছে সংকীর্ণ। ফলাফল যানজট। অন্য দিকে নগরবাসী নিত্য দিনের সেবা বন্ধ রাখা হচ্ছে ক’দিন পরপরই। এবার বন্ধ থাকার ঘোষণা এলো তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে।

মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজের জন্য গ্যাসের পাইপলাইন পুনঃস্থাপন করা হচ্ছে। এ কারণে চলতি সপ্তাহের মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে ১২ ঘণ্টার জন্য বন্ধ থাকবে গ্যাস সরবরাহ। এ প্রসঙ্গে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এবং ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালক (অপারেশন) মোঃ কামরুজ্জামান এ প্রসঙ্গে গণমাধ্যমকে জানান, মঙ্গলবার রাজধানীর উত্তরা, গুলশান, বনানী, যাত্রাবাড়ি এবং মিরপুরের কিছু অংশে গ্যাসের সরবরাহ সীমিত থাকবে। এবাদে ঢাকার অন্য সব জায়গায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে।’

১৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার সিটি গ্যাস স্টেশনে (সিজিএস) রক্ষণাবেক্ষণ কাজের জন্য সকাল ৮টা থেকে ২৪ ঘণ্টারও বেশি সময় গ্যস সরবরাহ বন্ধ ছিল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই সমস্যা ইতোমধ্যেই সমাধান করা হয়েছে। সকালের মধ্যেই রাজধানীর সর্বত্র গ্যাস সংযোগ পুনরায় চালুকরা হয়েছে।’

তিতাস জানায়, সংস্থাটির অধীনে যে গ্রাহক আছে তাদের পূর্ণ মাত্রায় গ্যাস সরবরাহ করা হলে দুই হাজার ৪০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস দরকার হয়। তবে এরমধ্যে দুই হাজার  থেকে দুই হাজার ২০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পেলে চাহিদা মোটামুটি পূরণ করা যায়। কিন্তু এখন গড়ে গ্যাস পাওয়া যায় এক হাজার ৭০০ মিলিয়ন ঘনফুট করে। ফলে গ্যাসের চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কম হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ১৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার মিরপুর, মোহাম্মদপুর, কালাবগান, শ্যামলী, আগারগাঁও, ছাড়াও ধামরাই, আশুলিয়া, আমিনবাজার, সাভার ও মানিকগঞ্জসহ রাজধানীর আশপাশের কয়েকটি এলাকায় ২৪ ঘণ্টারও বেশি গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষ।

আজকের পত্রিকা/আ.স্ব/