ই-ক্যাব লোগো। ছবি: ই ক্যাব

২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে ই-কমার্সের ওপর ৭ দশমিক ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে সরকার। তবে পণ্য মূল্যের পরিবর্তে ভ্যালু অ্যাডেড সেবার ওপর ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।

৩০ জুন রবিবার পাস হওয়া অর্থবিল পর্যালোচনা শেষে এমনটাই জানায় ই-কমার্স ভিত্তিক ব্যবসায়ীদের সংগঠন ই-ক্যাব।

সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহেদ তমাল স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ই-কমার্স খাতে ভ্যাট আরোপে নতুন পদ্ধতি গ্রহণ করেছে সরকার।

ই-ক্যাবের দাবি অনুযায়ী, খাতটিকে সম্পূর্ণ ভ্যাটমুক্ত রাখা না হলেও পণ্য মূল্যের পরিবর্তে ভ্যালু অ্যাডেড সেবার ওপর ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।

ভ্যাট আরোপ প্রক্রিয়ার উদাহরণ দিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এর ফলে অনলাইনের মাধ্যমে যদি ১০০ টাকার একটি পণ্য কেনা হয় এবং ই-কমার্স কোম্পানির প্রান্তিক ভোক্তার কাছে ভ্যালু অ্যাডেড সার্ভিস বাবদ যদি ৫ টাকার মূল্য সংযোজিত হয়, তবে ই-কমার্স ব্যবসায়ীদের ওই ভ্যালু অ্যাডেড মূল্যের ওপর ভ্যাট সংগ্রহ করবে ৫ শতাংশ বা ০ দশমিক ২৫ টাকা।

প্রস্তাবিত বাজেটে ই-কমার্স খাতে পণ্যের দামের ওপর ৭ দশমিক ৫ শতাংশ ভ্যাট প্রস্তাব করা হয়। সেক্ষেত্রে অনলাইনে পণ্য বিক্রি করতে গেলে শতকরা ৭ দশমিক ৫ টাকা ভ্যাট দিতে হতো। প্রস্তাবনার পর থেকেই ই-ক্যাব এটি প্রত্যাহারের জোরালো দাবি জানিয়ে আসছিলো।

আজকের পত্রিকা/এমইউ