দাদি নানিদের কাছ থেকে আমরা প্রায়ই শুনে থাকি যে ভেজা চুল নিয়ে ঘুমাতে যাওয়া যাবে না। ছবি: সংগৃহীত

দাদি নানিদের কাছ থেকে আমরা প্রায়ই শুনে থাকি যে ভেজা চুল নিয়ে ঘুমাতে যাওয়া যাবে না। কোনো কারণ এবং ব্যাখ্যা ছাড়াই তাদের এই নির্দেশ। আবার অনেকেই এই নির্দেশ না বুঝেই মেনে চলত। কেউ হয়তো মানত না।

সকালের তাড়াহুড়া এড়াতে অনেকেই রাতে গোসল করে ফেলে। অলসতার কারনে চুল শুকানো হয় না। এর ফলে কী হয়? জেনে নিন-

স্যাঁতসেঁতে চুলে খুশকি খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। ছবি: সংগৃহীত
  • খাদ্যাভ্যাস ও বায়ু ইতিমধ্যেই আমাদের চুলকে যথেষ্ট ক্ষতি করেছে। আর আমরা যখন ভেজা চুলে ঘুমাতে যাই তখন চুল অনেক নরম থাকার ফলে চুল মাঝখান থেকে ভেঙ্গে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ঘুমানোর সময় এপাশ ওপাশ করার সময়ও চুল ভাঙ্গে।
  • খুব গরমে এসি ছেড়ে কিংবা শীতকালে ভেজা চুল নিয়ে ঘুমাতে গেলে অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। সর্দি, কাশি, ঠাণ্ডা এমনকি জ্বরও হতে পারে।
  • ভেজা চুল নিয়ে ঘুমিয়ে পড়লে সকালে দেখতে পাবেন চুলের যা তা অবস্থা। চুলে জট লেগে যেতে পারে। আর আঁচড়াতে গেলে অনেক চুল পড়ে যাবে।
  • বলা হয় যে ভেজা চুল নিয়ে ঘুমালে আপনার প্রতিরক্ষা সিস্টেম আরও খারাপ হতে থাকবে এবং আপনাকে ঠান্ডা এবং ফ্লু ভাইরাস আক্রমন করতে পারে।
  • স্যাঁতসেঁতে চুলে খুশকি খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। চুলে ব্যাকটেরিয়া জন্ম নেউ এবং চুলের স্বাভাবিক আদ্রতা নষ্ট হয়।
  • ভেজা চুল বালিশে ব্যাকটেরিয়া রেখে যায়। বালিশে ব্যাকটেরিয়া থাকলে মুখে ব্রন হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

আজকের পত্রিকা/রিয়া/এআরকে