ভাসমান ৮২ অভিবাসীর জায়গা মিলেছে ইতালিতে

ছয়দিন ধরে সমুদ্রে ভাসমান ৮২ অভিবাসীকে উদ্ধার করা জাহাজটিকে নানা জটিলতার পর ইতালির একটি দ্বীপে নামার অনুমতি দিয়েছে দেশটির সরকার।

দেশটির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, উদ্ধার হওয়া অভিবাসীদের ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্যদেশগুলোতে পাঠানো হবে। অনেকের ধারণা, অভিবাসীদের প্রতি এই আচরণের পরিবর্তনের সাথে গত মঙ্গলবার দেশটিতে যে নতুন জোট করা হয়েছে তার সম্পর্ক রয়েছে।

এর আগে, দাতব্য সংস্থাগুলো পরিচালিত অভিবাসীদের উদ্ধারকারী জাহাজগুলোকে নিয়ম করে বন্দরে আটকে দিতেন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাত্তেও স্যালভিনি।

ইতালির পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশটির টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে বলেছেন, “একটা নিরাপদ বন্দর ঠিক করা হয়েছে কারণ ইউরোপীয় ইউনিয়ন আমাদের অনুরোধ রেখে বেশির ভাগ অভিবাসী নিতে রাজি হয়েছে”।

এর অর্থ এই নয় যে আবারো উন্মুক্ত বন্দরের নীতিতে ফিরে যাচ্ছি-যোগ করেন তিনি।

এদিকে ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গতকাল শনিবার এক টুইটবার্তায় বলেছেন, একটা ইউরোপিয়ান চুক্তি হয়েছে ইতালি, ফ্রান্স, জার্মানি, পর্তুগাল এবং লুক্সেমবার্গে মধ্যে যার ফলে দরকার হলে তাদেরকে তীরে আসতে দেয়া হবে।

তিনি বলেন, ‘আমাদের এখন দরকার একটা বাস্তব সাময়িক ইউরোপিয়ান ব্যবস্থা।’ অর্থাৎ ইইউ একটা ব্যবস্থা নিচ্ছে যদিও সেটা প্রাথমিকভাবে সাময়িক।

জার্মানির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ভবিষ্যতের ঐ চুক্তি অনুযায়ী তার দেশ ইতালি থেকে ২৫% উদ্ধার করা অভিবাসী নেবে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের মন্ত্রীরা আগামী অক্টোবরে মাল্টাতে এক সম্মেলনে যোগ দেবেন। যেখানে তারা একটা বৃহৎ চুক্তিতে পৌঁছাতে পারবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সূত্র : বিবিসি বাংলা