প্রতীকী ছবি

ময়মনসিংহের ভালুকায় বড় ভাই ধনু মিয়ার ঘরের পাশে প্রস্রাব করেন ছোট ভাই রউফ মিয়া (১৮)। এ নিয়ে দুই ভাইয়ের মাঝে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে বড় ভাই উত্তেজিত হয়ে লাঠি দিয়ে ছোট ভাইয়ের মাথায় আঘাত করেন। আর এতেই প্রাণ হারান ছোট ভাই রউফ মিয়া। এ সময় ছোট ছেলেকে বাঁচাতে এগিয়ে আসা পিতাও আহত হন।

১১ জানুয়ারি শুক্রবার সকালে উপজেলার মল্লিকবাড়ি ইউনিয়নের নয়নপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের মা সুরজান জানান, বৃহস্পতিবার রাতে বড় ভাই ধনুর ঘরের পাশে ছোট ভাই রউফ মিয়া প্রস্রাব করেন। এ নিয়ে শুক্রবার সকালে ধনুর সাথে রউফের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে কাঠের লাঠি দিয়ে ধনু তার ছোট ভাই রউফকে মারধর করেন। এ সময় পিতা তমিজ উদ্দিন (৬০) ছেলেকে রক্ষা করতে এলে লাঠির আঘাতে তিনিও আহত হন।

দুপুর ১২টার দিকে রউফ অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক রউফ মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন। রউফের মৃত্যুর খবর শুনার পর পরই পালিয়ে যান ধনু মিয়া। ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ফিরোজ তালুকদার জানান, পারিবারিক কলহের কারণে ছোট ভাইকে বড় ভাই কাঠের লাঠি দিয়ে আঘাত করলে তিনি মারা যান। হাসপাতালে মরদেহ রেখে বড় ভাই পালিয়ে গেছেন।
আজকের পত্রিকা/এম.এ. আর শায়েল/১১/০১/২০১৯