হারানো ছেলে ফিরে পেয়ে আত্মহারা বাবা

কুড়িগ্রামের নিখোঁজ মানসিক ভারসাম্যহীন পুত্র আশরাফুল (৩২) কে আড়াই বছর পর ময়মনসিংহের ধোবাউড়া থেকে ফিরে পেলো বাবা।

জানা গেছে, ১৯ জুলাই শুক্রবার ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার দক্ষিন মাইজপাড়া ইউনিয়নে চারুয়াপাড়া বাজারে জনৈক যুবককে গলাকাটা সন্দেহে জনতা আটক করে পুলিশকে সংবাদ দেয়।

ধোবাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ আলী আহম্মেদ মোল্লার নির্দেশে এস আই আব্দুল খালেক সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে পৌচ্ছে ওই যুবককে পুলিশ হেফাজতে ধোবাউড়া থানায় নিয়ে আসে।

পুলিশের জিঙ্গাসাবাদে ওই যুবক আকার ইঙ্গিতে কাগজে লিখে তার নাম আশরাফুল বাবার নাম মুনসর আলী বাড়ী কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর থানার তবকপুর মন্ডল পাড়া পরিচয় দেয়।

ধোবাউড়া থানা পুলিশ বহুচেষ্টা চালিয়ে যোগাযোগ করে তার বাবার সন্ধান পান।তার বাবাকে সংবাদ দিলে আশরাফুলের বাবা মুনসুর আলীসহ তিনজন ধোবাউড়া থানায় আসেন।

মুনসুর আলী পুলিশকে জানান,আড়াই বছর পৃর্বে তাহার মানসিক প্রতিবন্ধী পুত্র আশরাফল (৩২) বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। অনেক খুজাঁখোজি করে সন্ধান পায়নি।

আজ ২১ জুলাই রবিবার ধোবাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ আলী আহম্মেদ মোল্লা রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে নিখোঁজ আশরাফুলকে তার বাবা মুনসুর আলী কাছে বুঝিয়ে দেয় ।

দীর্ঘ আড়াই বছর পর হারানো ছেলেকে ফিরে পেয়ে বৃদ্ধ মুনসুর আলী আনন্দে আত্মহারা। তিনি পুলিশের সেবা পেয়ে থানা ওসি সহ সকলের জন্য দোয়া করেন।

ধোবাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ আলী আহম্মেদ বলেন, কোন মানসিক প্রতিবন্ধী (পাগল) নারী পুরুষ দেখলেই গলাকাটা ছেলে ধরা সন্দেহে মারপিট করবেন না। আটক করে থানায় খবর দেওয়ার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

রফিক বিশ্বাস/তারাকান্দা