৫৪৩ আসনের লোকসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য কমপক্ষে ২৭২টি আসন প্রয়োজন। ছবি: সংগৃহীত

২৩ মে বৃহস্পতিবার ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা শুরু হয়েছে। স্থানীয় সময় সকাল আটটা থেকেই বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোট গণনা শুরু হয়েছে।

গত ১১ এপ্রিল থেকে ১৯ মে মোট সাত ধাপে লোকসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। ৫৪৩ আসনের লোকসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য কমপক্ষে ২৭২টি আসন প্রয়োজন।

ভোট গণনাকে কেন্দ্র করে পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা শহরের ১৩টি ভোট গণনাকেন্দ্রে কড়া নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ভারতের পার্লামেন্টে তৃতীয় সর্বোচ্চ সংখ্যক এমপি যায় পশ্চিমবঙ্গ থেকেই। কলকাতায় প্রায় চার হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ভোটের ফলাফলের পর যেন কোনও ধরনের বিশৃঙ্খলা না হয় সেজন্য পুলিশ বাহিনী নজরদারি রাখছে। স্পর্শকাতর এলাকাতে কড়া নজরদারি চলছে। ভোট গণনা কেন্দ্রের ভেতরে রয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।

এছাড়া ভোট গণনা কেন্দ্রের বাইরে রয়েছে সশস্ত্র রাজ্য পুলিশ। কেন্দ্রের বাইরেও সাদা পোশাকে রয়েছে পুলিশ। এছাড়াও প্রতি ডিভিশনে থাকছে অতিরিক্ত পুলিশ। গণনাকেন্দ্রের এক’শ মিটারের মধ্যে কোনও দলের সমর্থককে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

১৭তম লোকসভা নির্বাচনে সারাদেশে মোট ভোটার ছিল প্রায় ৯০ কোটি। এতে এক হাজার ৮শ ৪১টি রাজনৈতিক দলের আট হাজারেরও বেশি প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এর মধ্যে নারী প্রার্থীর সংখ্যা ৭২০ এবং তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী ছিলেন ৪ জন। এর আগে ১৯৫১-৫২ সালে ভারতের প্রথম লোকসভা নির্বাচন সম্পন্ন হতে ৩ মাস সময় লেগেছিল।

আজকের পত্রিকা/বিএফকে/এমএইচএস