ভারতের উত্তরপ্রদেশের আগ্রায় ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনায় অন্তত ২৯ জন নিহত হয়েছে। এতে আহত হয়েছে আরো অনেকে। উদ্ধারকাজ এখনো অব্যাহত রয়েছে। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। খবর এনডিটিভির। দেশটির পুলিশ জানায়, বাসটি লখনউ থেকে দিল্লির পথে যাচ্ছিলো।

পথিমধ্যে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ১৫ ফুট নিচে ড্রেনে পরে যায়। উত্তর প্রদেশের পুলিশ টুইটারে জানায়, একটি যাত্রীবাহি বাস লখনউ থেকে দিল্লি আসার পথে যমুনা এক্সপ্রেস ওয়েতে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। বাসটি প্রায় ১৫ ফুট গভীরে গিয়ে পড়ে। এখন পর্যন্ত ২০ জন যাত্রীকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

বিভিন্ন সূত্রের খবরে বলা হয়েছে, ওই বাসের চালক ঘুমিয়ে পড়েছিলেন। এক ভিডিওতে দেখা যায়, সাদা রঙের বাসটি দুমড়ে গেছে, সেখান থেকেই মৃতদেহ গুলো টেনে বাইরে নিয়ে আসা হচ্ছে।

একটি বড় ড্রেনের মধ্যে বাসটি ঢুকে যাওয়ার ফলেই এই ঘটনা ঘটে। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফ থেকে বলা হয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এই ঘটনায় খুবই শোকাহত। হতাহতদের পরিবারের লোকেরা যাতে সমস্ত রকম সুযোগ সুবিধা পায়, সেদিকে বিশেষ নজর দিতে বলেছেন তিনি।

আজকের পত্রিকা/এমএআরএস