আসাদুজ্জামান স্বপ্ন
সিনিয়র রিপোর্টার

ভারতের মন্ত্রিসভায় জাতীয় গরু কমিশন গঠন। ছবি : সংগৃহীত

গরু সংরক্ষণ এবং উন্নয়ন বিষয়ক নীতিমালা প্রনয়নে ‘রাষ্ট্রীয় রামধেনু আয়োগ’ (জাতীয় গরু কমিশন) নামে একটি কমিশন গঠনের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। ৬ ফেব্রয়ারি বুধবার নিয়মিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ প্রস্তাব অনুমোদন করা হয় বলে টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানান কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ।

জাতীয় গরু কমিশন গঠনের ফলে ভারতে গরু সংরক্ষণ, রক্ষণাবেক্ষণ এবং তাদের উন্নয়নে প্রয়োজনীয় বিভিন্ন নীতিমালা তৈরি হবে। এতে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকরা লাভবান হবেন বলে মনে করা হচ্ছে। অনেকে কৃষি মৌসুম শেষে গরুর বাড়তি খাবারের বোজা বইতে না পেরে বেওয়ারিশ হিসেবে সেগুলোকে ছেড়ে দিচ্ছেন। গ্রাম-শহরে রাস্তাঘাট সয়লাব হয়ে পড়ছে বেওয়ারিশ গরুতে। ফল ফসলের মাঠে অনেক সময় হামলে পড়ছে এসব গরু। এমন বিশৃঙ্খল পরিস্থিতিতেই গরু কমিশন গঠনের প্রস্তাব অনুমোদন করা হলো। বিগত কয়েক বছর ধরে ভারতজুড়ে গরু জবাই ও বিক্রি নিয়ে নানান ধরনের ঘটনা ঘটে আসছে। বিভিন্ন রাজ্যে গরু জবাই ও বিক্রি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। অনেক জায়গায় গরু সংক্রান্ত বিভিন্ন অভিযোগ তুলে শতাধিক মুসলিমকে হত্যা করা হয়েছে। অন্যদিকে গরু বিক্রি ও জবাই বন্ধ হয়ে যাওয়ায় প্রান্তিক কৃষকরা বিপাকে পড়েছেন।