ছবি: সংগৃহীত

কাশ্মীর নিয়ে চলমান পাক-ভারত উত্তেজনায় ভারতের পারমাণবিক অস্ত্রাগারের সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ১৬ আগস্ট শুক্রবার ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং রাজস্থানে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মন্তব্য করেন, ‘ভারত এখনো পর্যন্ত পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার না করার নীতি মেনে চলছে। তবে ভবিষ্যতে কী হবে, তা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করবে।’

এমন বক্তব্যের পর ১৮ আগস্ট টুইটারে এক টুইট বার্তায় নিজের উদ্বেগ প্রকাশ করে ইমরান লিখেন, ‘কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সতর্ক। কাশ্মীরে এখন জাতিসংঘের পর্যবেক্ষক পাঠানো উচিত।’ এই বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে রাজনাথ সিংয়ের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতি দিয়েছে। সে বিবৃতিতে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি বলেছেন, ‘এ ধরনের মন্তব্য ভারত ও এর আশপাশের অঞ্চলে স্থিতিশীলতার নষ্ট করছে।’

উল্লেখ্য, ৫ আগস্ট ভারতের বর্তমান বিজেপি শাসিত কেন্দ্রীয় সরকার জম্মু ও কাশ্মীরকে বিশেষ সুবিধা দেওয়া সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে দ্বিখণ্ডিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। রাজ্যটিকে দ্বিখণ্ডিত করে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ নামে দুটি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল সৃষ্টির সিদ্ধান্ত হয়। এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ভারতীয় হাইকমিশনারকে বহিষ্কার করে পাকিস্তান।

আজকের পত্রিকা/সিফাত