মরদেহ। প্রতীকী ছবি

নাটোরের বড়াইগ্রামে হাসান আলী (১১) নামে এক কিশোরকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার সকালে উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামে কিশোরের শোবার ঘরের পেছন থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

হাসান আলী কচুয়া গ্রামের আব্দুল হালীমের প্রথম স্ত্রীর সন্তান এবং কচুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র। তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের বাবা আব্দুল হালিম ও মা রিনা বেগমকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, কচুয়া গ্রামে হাসান আলী তার মায়ের সাথে একাই থাকতেন। মঙ্গলবার রাতের কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ঘরের পেছনে ফেলে রাখা হয়। হাসানের বাবা আব্দুল হালিম দ্বিতীয় স্ত্রীর সাথে অন্যবাড়িতে থাকতেন।

বুধবার সকালে স্থানীয়রা হাসানের লাশ দেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। হাসানের মা রিনা বেগমকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে বড়াইগ্রাম হাসাপালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়। একই সাথে হাসানের বাবা আব্দুল হালিমকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়।

বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলিপ কুমার দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনার রহস্য জট খুলতে নিহত হাসানের মা ও বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। হাসানের মাকে সন্দেহ হলেও নিশ্চিত করে কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না। এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি দিলিপ।

শাহিনুজ্জামান/বড়াইগ্রাম/নাটোর