হাইকোর্ট। ছবি : সংগৃহীত

পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা. শাহ মোজাহিদুল ইসলামকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে আগামী ২২ মে সকাল সাড়ে ১০টায় স্বশরীরে হাজির হয়ে তাকে ওই মেডিক্যাল সার্টিফিকেটের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

৭ মে মঙ্গলবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এ সময় আদালতে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল ইউসুফ মাহমুদ মোর্শেদ।

পরে ইউসুফ মাহমুদ মোর্শেদ বলেন, গত ১৯ জানুয়ারি পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী থানায় করা একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলার মেডিক্যাল সার্টিফিকেটে বিপরীতধর্মী তথ্য রয়েছে।

সার্টিফিকেটে মৃত্যুর কারণ হিসেবে অ্যান্টিমর্টেম এবং অ্যাক্সিডেন্টাল উভয় শব্দের উল্লেখ করা হয়েছে। এখানে অ্যান্টিমর্টেম হতে পারে কিন্তু অ্যাক্সিডেন্টাল হবে কেন? এ কারণে সিভিল সার্জনকে ব্যাখ্যা দেওয়ার জন্য তলব করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এই মামলার আসামি দীনেশ চৌকিদারের জামিন শুনানিকালে মেডিক্যাল সার্টিফিকেটের বিপরীতধর্মী তথ্য দেখতে পেয়ে হাইকোর্ট ওই তলব আদেশ দেন। একই সঙ্গে আসামির জামিন শুনানিও পিছিয়ে ২২ মে ধার্য করেন আদালত।

আজকের পত্রিকা/এমএআরএস