বেগম রোকেয়া দিবসে ভোলায় ৮ নারীকে সংবর্ধনা

বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষ্যে জয়িতা অন্বেষনে বাংলাদেশে কার্যক্রমের আওয়তায় ৮ মহীয়সী নারীকে ৫টি ক্যাটাগরিতে ভোলায় সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

(৯ ডিসেম্বর) সোমবার দুপুরে ভোলা জেলা প্রশাসক হলরুম কক্ষে জেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক  অধিদপ্তর  ভোলা এর যৌথ আয়োজনে এই সংবর্ধনা প্রদান করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে জেলা প্রশাসক মো: মাসুদ আলম ছিদ্দিক উপস্থিত থেকে ৮ মহীয়সী নারীকে সম্মাননার  ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক মো: মাহামুদুর রহমান, জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর এর উপ-পরিচালক মো: ইকবাল হোসেন, ভোলা লেডিস ক্লাবের সম্পাদিকা প্রভাষক খাদিজা আক্তার স্বপ্না।

এসময় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা চামেলী বেগম।

অনুষ্ঠানে সঞ্চলনা করেন তরুন সংগঠক আদিল হোসেন। পরে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় বক্তারা বলেন, ধর্মীয়  গোড়ামি ও কুসংস্কার শৃঙ্খলা  থেকে নারীকে মুক্ত করার লক্ষ্যে  প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করে গেছেন বেগম রোকেয়া।

যার স্বপ্ন ছিলো সমাজে নারী-পুরষ সমান মর্যাদা ও অধিকার নিয়ে বাচঁবে। নারী  অন্ধকারে না থেকে  আত্ম সম্মান নিয়ে নারী উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষত হবে। নারী নানা কাজে যুক্ত হয়ে দেশের অর্থনৈতিক  মুক্তির সহায়ক হবে।

জেলা পর্যায়ে জয়িতা সম্মানিতরা হলেন- সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখায় ফাহিম বেগম, শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী রাশিদা বেগম, সফল জননী নারী উম্মে কুলুছুম, নির্যাতনের বিভীষিকা  মুছে ফেলে  নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করেছেন যে নারী আকতারা বেগম, অর্থনৈতিক সাফল্য অর্জনকারী নারী উম্মে ছালমা মুক্তা।

উপজেলা পর্যায়ে জয়িতা সম্মানিতরা হলেন শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী এডভোকেট জান্নাতুল ফেরদৌস জুবলী, সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখায় লায়লা আরজুমান ভানু, নির্যাতন বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করায় মনোয়ারা বেগম কে এ সম্মনানা প্রদান করা হয়।

আবদুল মালেক/ভোলা