নিহত এক নারী

সিলেটের বিয়ানীবাজার ও মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নারী ও শিশুসহ ৩ জন নিহত হয়েছেন।

বিয়ানীবাজার সংবাদদাতা জানান-বিয়ানীবাজার-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের দুটি যাত্রীবাহী সিএনজির অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে তাহমিনা আক্তার (১৮) নামের এক তরুণী যাত্রী ও হাসপাতালে নেয়ার পথে তিন্নি বেগম (৮) নামের আরেক শিশু নিহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় নারীসহ আরো ৩ যাত্রী গুরুতর আহত হন। আহতদেরকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেলে কলেজ হাসপাতলে প্রেরণ করা হয়েছে।

শনিবার দুপুর ১২টার দিকে বিয়ানীবাজার-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের কামারগ্রাম এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত তাহমিনা ও তিন্নির বাড়ি উপজেলার শেওলা ইউনিয়নের চারাবই মাইজপাড়া এলাকায়। সম্পর্কে তারা দুজন খালাতো বোন। দুজনের নানাবাড়িতে বসবাস করতেন বলেও জানা গেছে। তাহমিনা বেগম (১৮) বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের ছাত্রী এবং অপরজন তাহমিনার খালাত বোন তিন্নি বেগম (৮) চারাবই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী। চারখাইয়ে এক আত্মীয়ের বিয়েতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তবে এ প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত আহত অন্যদের নাম-পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি।

বিয়ানীবাজার থানার ওসি অবনী শংকর কর দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে বিয়ানীবাজার থানার চারখাই পুলিশ কেন্দ্রে একদল পুলিশ দূর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

কুলাউড়া : মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় যাত্রীবোঝাই সিএনজি চালিত অটোরিক্সা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে ছমিরুন নেছা (৬০) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে । এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন সিএনজি চালকসহ আরও ৪জন।

(১৯অক্টোবর) শনিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার কুলাউড়া-মৌলভীবাজার সড়কের মিশন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার সিএনজি অটোরিকশা করে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে কুলাউড়ায় আসার পথে প্রতিমধ্যে ব্রাক্মণবাজারে মিশন এলাকায় সিএনজি চালিত অটোরিক্সা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে সিএনজিটি দুমড়ে মুচড়ে যায় ।

আহতদের উদ্ধার করে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী কুলাউড়া উপজেলার লংলা খাস গ্রামের বাসিন্দা মৃত বসির মিয়ার স্ত্রী ছমিররুন (৬০) কে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে দুর্ঘটনায় একই পরিবারের আহতরা হলো, কুলাউড়া উপজেলার লংলা খাস গ্রামের মৃত বসির মিয়ার ছেলে আবুল মিয়া(৪০) ও তার মেয়ে মারজানা বেগম(৭),লংলা খাস গ্রামের মৃত চান মিয়ার স্ত্রী আমিনা (৪৬) এবং সিএনজি গাড়ী চালক শ্রীমঙ্গল উপজেলার মৃত খালেক মিয়ার ছেলে মোঃ মুসলিম (৩০)।

আহতদের মধ্যে ৩ জনকে কুলাউড়া হাসপাতাল ও এক জনকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কুলাউড়া থানার এসআই মোঃ দিদার উল্লাহ দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।