বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লিমিটেডের ইন-ফ্লাইট সেবার মান বৃদ্ধির নির্দেশ প্রদান করেছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী এমপি। আজ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লিমিটেডের ফ্লাইট ক্যাটারিং সেন্টার ও বিমানবন্দরের এপ্রোনে পার্ক করা বিমানের বিভিন্ন উড়োজাহাজ আকস্মিক পরিদর্শন শেষে এ নির্দেশ প্রদান করেন তিনি। পরিদর্শনকালে তার সাথে ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মহিবুল হক, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ মোকাব্বির হোসেন, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব জনেন্দ্র নাথ সরকার ও হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক তৌহিদ-উল-আহসান।
পরিদর্শনকালে প্রতিমন্ত্রী বিমান ফ্লাইট ক্যাটারিং সেন্টারের কুকিং সেকশন, ওয়াশিং ইউনিট, বেকারী শাখাসহ বিভিন্ন বিভাগের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেন। এসময় তিনি সেখানে কর্মরত কর্মীদের খাবারের উচ্চ মান নিশ্চিত করার পাশাপাশি যাত্রীদের পরিবেশন করা খাবারের বিশুদ্ধতা নিশ্চিত করার নির্দেশ প্রদান করেন। তিনি বলেন, রাস্ট্রীয় পতাকাবাহী সংস্থা হিসেবে বিমানের ভাবমূর্তির সাথে সাথে দেশের ভাবমূর্তি জড়িত। এমন কিছু করা যাবেনা যাতে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়। বিমানে ভ্রমণ করা দেশী-বিদেশী প্রত্যেক যাত্রী আমাদের সম্মানিত অতিথি। খেয়াল রাখতে হবে আমাদের অতিথিদের সেবায় যাতে কোন প্রকার ত্রুটি না থাকে। যাত্রী সেবার মান বৃদ্ধির ব্যাপারে কোন আপোষ নেই। যাত্রী সন্তুষ্টি অর্জন ছাড়া কোন প্রতিষ্ঠান এগিয়ে যেতে পারে না।
এ বিষয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মহিবুল হক বলেন, বিমান সংস্কার প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে এ ধরণের পরিদর্শন অব্যাহত থাকবে। সেবার মানের প্রশ্নে কোনো ধরনের অবহেলা ও অনিয়ম সহ্য করা হবে না। বিমানের সুনাম ফিরিয়ে আনতে যা যা করণীয় তার সবই বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় করবে। রাষ্ট্রীয় এ প্রতিষ্ঠানটিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে আমরা সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।
বিমান ফ্লাইট ক্যাটারিং সেন্টার পরিদর্শন শেষে প্রতিমন্ত্রী মো মাহবুব আলী ও সচিব সহ অন্যান্যরা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পার্কিং এরিয়াতে পার্ক করে রাখা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিভিন্ন উড়োজাহাজ পরিদর্শন করেন। উড়োজাহাজের ভেতরকার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এসময় তারা উপস্থিত কর্মকর্তাদের নির্দেশনা প্রদান করেন।