২১০০ স্কয়ার ফুটের প্লট নগদ ও কিস্তিতে সম্পূর্ণ মূল্য পরিশোধে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। ছবি: সংগৃহীত

দেশের রিয়েল এস্টেট খাতের সর্ববৃহৎ মার্কেটপ্লেস বিপ্রপার্টি ডটকম, যারা অভিনব উপায়ে অনলাইন ও অফলাইনে প্রপার্টি ক্রয়-বিক্রয় ও ভাড়া প্রদানের কাজ করে, সম্প্রতি পূর্বাচল মেরিন সিটির সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। যৌথভাবে বিপ্রপার্টি ডটকম ও পূর্বাচল মেরিন সিটি ‘বিপ্রপার্টি ভিলেজ’ নামে একটি প্রকল্প চালু করেছে। উক্ত প্রকল্পের আওতায় যেকোনো প্রপার্টি ক্রয়ের ক্ষেত্রে নগদ ও কিস্তিতে সম্পূর্ণ মূল্য পরিশোধে ৩০ শতাংশ এবং অর্ধমূল্য পরিশোধে ১৫ শতাংশ ছাড় প্রদান করা হবে। বিপ্রপার্টি ভিলেজ-এ ৯০০০, ৭২০০, ৩৬০০ ও ২১৬০ বর্গফুট সাইজের ৪১৩টি প্লট ক্রয় করতে পারবে ক্রেতারা।

ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে এমন অনেক প্রকল্পের কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে ঢাকার পূর্বাচলে। তেমন একটি মেগা প্রকল্প পুর্বাচল মেরিন সিটি যার প্রাণকেন্দ্রে ‘বিপ্রপার্টি ভিলেজ’ এর অবস্থান। বিপ্রপার্টি ভিলেজে বসবাসকারীদের জন্যে পরিকল্পিত ও সুসংগঠিত এপার্টমেন্ট এর পাশাপাশি থাকছে সুপ্রশস্থ রাস্তা, খেলার মাঠ, সুইমিং পুল, ক্লাব ও ব্যায়ামাগার, কমিউনিটি সেন্টার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সুপার শপের মতো সকল আধুনিক সুযোগ সুবিধা হাতের নাগালেই।

এছাড়াও, বিপ্রপার্টি ভিলেজের পাশেই আছে জিন্দা পার্ক, এছাড়াও থাকছে পূর্বাচল নিউ টাউন, আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার মাঠ, গলফ ক্লাব, সেন্ট্রাল বিজনেস ডিসট্রিক্ট (১৪২ তলার নয়নাভিরাম টাওয়ার) এর মতো অনেক প্রকল্প।

বিপ্রপার্টি ডটকম’র প্রধান নির্বাহী (সিইও) মার্ক নসওয়ার্দি বলেন, ‘বিপ্রপার্টি ভিলেজ একটি স্বপ্নের প্রকল্প যা এদেশের বসবাসের মান ও শৈলীকে পরিবর্তন করবে। আমরা আমাদের গ্রাহকদের একটি নতুন জীবন প্রদান করতে চাই যেখানে তারা ব্যস্ত ঢাকার সকল ঝঞ্ঝাট থেকে বাইরে বসবাস করেও ঢাকা শহরের সকল সুযোগ সুবিধা উপভোগ করবে। এখানে সকলেই তাদের প্রত্যাশিত জীবনের যাবতীয় চাহিদা যেমন; বহুসংখ্যক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, নতুন কর্মজীবনের সুযোগ ও বিনোদনের মতো যাবতীয় সুবিধা পাবেন।’
কেউ প্রপার্টি ক্রয় করতে চাইলে বিপ্রপার্টি তাদের প্রপার্টি সংক্রান্ত সকল ধরনের সমাধান প্রদান করে থাকে। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে প্রকল্পটিকে সফল এবং নিখুঁতভাবে সম্পন্ন করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ আমাদের জন্য।

বিপ্রপার্টি ডটকম সম্পর্কে:
ইমারজিং মার্কেটস্ প্রপার্টি গ্রুপ (ইএমপিজি)–এর অঙ্গসংস্থান বিপ্রপার্টি ডটকম বাংলাদেশে যাত্রা করে ২০১৬ সালে এবং কোম্পানিটির ওয়েবসাইটে ভাড়া ও বিক্রি করার জন্য বর্তমানে ২৫,০০০ এরও বেশি প্রপার্টির তথ্য দেয়া আছে। উঠতি মার্কেটগুলোর চাহিদা অনুযায়ী রিয়েল এস্টেট খাতে বিশ্বমানের সেবা দেয়ার ক্ষেত্রে ইএমপিজি বরাবরই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। এছাড়া এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকার রিয়েল এস্টেট খাতেও ইএমপিজি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। ইএমপিজি-এর সদরদপ্তর সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবস্থিত। বাংলাদেশে বিপ্রপার্টির সদরদপ্তর ঢাকার গুলশান ১ –এ। আরও জানতে ভিজিট করুন: www.bproperty.com

আজকের পত্রিকা/এমইউ