বাংলাদেশ জাতীয় দলের প্রথম সুপার স্টার বলা হয় মোহাম্মদ আশরাফুলকে। তার হাত ধরেই টাইগার ডেরায় আসে অনেক জয়। এই আশরাফুল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও দ্যুতি ছড়ান প্রথমদিকের আসরগুলোতে।

২০১৩ সালে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটরসের হয়ে শত রানের ইনিংস খেলেন আশরাফুল। কিন্তু ফিক্সিংয়ের জালে আটকা পড়ে হারিয়েছেন সম্মান, জাতীয় দল কিংবা ঘরোয়া লিগে খেলার সুযোগও।

দীর্ঘ পাঁচ বছর ক্রিকেটের বাইরে থাকা আশরাফুল সবশেষ বিপিএলেও খেলেছেন চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে। কিন্তু সুবিচার করতে পারেননি নিজের।

যার সুবাদে এবার দলই পাওয়া হলো না তার। আশরাফুল একা নন, দল পাননি বিপিএলের আরেক সেঞ্চুরিয়ান শাহরিয়ার নাফিসও।

এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান গতবার রাজশাহী কিংসের হয়ে খেললেও এবার আগ্রহই দেখায়নি কোনও দল।
এছাড়াও লেগ-স্পিনার জুবায়ের হোসেন লিখনও দল পাননি। অথচ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) বেঁধে দেয়া নিয়মে দল পাবারই কথা ছিল লিখনের।

শুধু তাই নয়, জাতীয় দলের হয়ে ভারত সফরে থাকা পেসার এবাদত হোসেনও উপেক্ষিত বঙ্গবন্ধু বিপিএলে।
এছাড়া অল-রাউন্ডার জিয়াউর রহমান, স্পিনার তানবীর হায়দার, পেসার শাহাদাৎ হোসেন, নাঈম ইসলাম, সোহরাওয়ার্দি শুভরা দল পাননি।