পুলিশের ভুল ছি। তাই  ভুলে জেলে থাকা রাজন ভুইয়া নামে এক সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে জামিন দিয়েছেন আদালত। সোমবার জামিনের পাশাপাশি মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত। ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান আজ সোমবার এ আদেশ দেন।

একই সঙ্গে এ ভুলের জন্য কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া থানার এক উপপরিদর্শকে (এসআই) মামুনুর রশীদকে তলব করা হয়েছে। নিরীহ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করায় কেন তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

এসআই মামুনুর রশীদকে আগামী ৪ ডিসেম্বর এই আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

আদালত একই সঙ্গে নিরীহ রাজন ভূঁইয়ার পরিবারকে কোনো ধরনের হয়রানি না করতে পুলিশ প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন। আদালতের আদেশে বলেছেন, যাচাই-বাছাই না করে নিরীহ নিরপরাধ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। যাচাই-বাছাই না করে রাজন ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশ আইনের সংশ্লিষ্ট ধারা তুলে ধরে আদালত বলেছেন, নিরীহ রাজন ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তার করায় পুলিশ আইনের ব্যত্যয় ঘটানো হয়েছে। এই আইনের সর্বোচ্চ শাস্তি হচ্ছে তিন মাসের কারাদণ্ড বা তিন মাসের বেতনের সমপরিমাণ জরিমানা।

রাজনের আইনজীবী নিকুঞ্জ বিহারী আচার্য বলেন, গত ১৬ অক্টোবর গ্রেপ্তার করা হয় রাজনকে। জন্মসনদ অনুযায়ী তার বয়স ১৯ বছর। রাজনের পক্ষে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার ৫ নম্বর দুলালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আনিছুর রহমান ভুঁইয়া (রিপন) আদালতে প্রত্যয়নপত্র দিয়েছেন। এতে বলেছেন, তার জানামতে রাজনের বিরুদ্ধে কোনও মামলা নেই। অন্যদিকে মূল আসামির নাম হাবিবুল্লাহ রাজন। তার বর্তমান বয়স ৩৩ বছর।

তিনি বলেন, গত ৭ নভেম্বর গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত মামলার একমাত্র আসামি হাবিবুল্লাহ রাজন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেছেন। ওই আবেদনের ওপর পরবর্তী শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

মামলার সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ৯ মে ২৮ পিস নেশাজাতীয় ইনজেকশনসহ পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন হাবিবুল্লাহ রাজন (২৬)। ওই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে রাজধানীর বংশাল থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়। রাজনের বাড়ি কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ার গোপালনগরে। তার বাবার নাম মো. আব্দুল মান্নান। মাদক মামলায় গ্রেপ্তারের এক মাসের মধ্যে জামিন পান রাজন। এরপর তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে চার্জশিট দেন। পরে আদালতে নিয়মিত হাজিরা না দেওয়ায় ২০১৩ সালের ৬ জুন রাজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। ওই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা যায় কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া থানায়। ওই পরোয়ানামূলে পুলিশ গোপালনগরের মৃত আ. মান্নান ভুঁইয়ার ছেলে রাজন ভুঁইয়াকে গত ১৬ অক্টোবর গ্রেপ্তার করে। এরপর থেকে তিনি কারাগারে।