রবিবার বিদ্যুৎ ভবনে যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত মূখ্য উপ-সহকারি সচিব থমাস ভাজদা এর নেতৃত্বে ৮ সদস্যের প্রতিনিধিদল প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষৎ শেষে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন। ছবি : সংগৃহীত

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, ‘বাংলাদেশে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ৭০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের সুযোগ সৃজন হয়েছে’।

তিনি বলেন, ‘চীন বা স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশগুলো এ বিনিয়োগে যতটা আগ্রহ দেখাচ্ছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অংশগহণ ততটা দেখা যাচ্ছে না। আমরা আরো বড় আকারে এসব খাতে যুক্তরাষ্ট্রের অংশগ্রহণ দেখতে চাই’।

১০ ফেব্রুয়ারি রবিবার বিদ্যুৎ ভবনে যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত মূখ্য উপ-সহকারী সচিব থমাস ভাজদার নেতৃত্বে ৮ সদস্যের প্রতিনিধিদল প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। এ সময় তারা পারস্পারিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন এবং প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘আমরা নেপাল ও ভূটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানির উদ্যোগ নিয়েছি। জলবিদ্যুৎ উৎপাদনে ভূটানে যে বিনিয়োগ করা হবে সেখানে আমরা সম্ভাবনাময় বিনিয়োগকারী খুঁজছি। সম্ভাবনার বিভিন্ন খাত খুঁজে বের করতে উভয় দেশের ব্যবসায়ী ও কর্মকর্তাদের ভ্রমণ আয়োজন করা যেতে পারে।’

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ এবং সেন্ট্রাল এশিয়াবিষয়ক ভারপ্রাপ্ত মূখ্য উপ-সহকারী সচিব বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। জ্বালানি খাত যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য। জ্বালানি নিরাপত্তাকে যুক্তরাষ্ট্র বিশেষ গুরুত্ব দেয়।

এ সময় এলএনজি, সাইবার সিকিউরিটি, প্রযুক্তিগত সহযোগিতা, পরিবেশ ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘সহযোগিতার নতুন নতুন ক্ষেত্র একসাথে বসে বের করা যেতে পারে।

এ সময় বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার ও পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইন উপস্থিত ছিলেন।

আজকের পত্রিকা/আরবি/