১ লাখ বিশ হাজার পিস ইয়াবা ও একটি দেশীয় তৈরী বন্দুক উদ্ধার

টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ইমাম হোসেন (২৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন।

নিহত যুবক টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমোরা গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে। বিজিবির দাবি করছে নিহত যুবক ইয়াবা কারবারের সঙ্গে জড়িত ছিল।

(১০ ডিসেম্বর) মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমোরা গ্রামের নাফ নদীর পাড়ে এ ‘বন্দুকযুদ্ধে’র ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে ১ লাখ বিশ হাজার পিস ইয়াবা ও একটি দেশীয় তৈরী বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত ইয়াবাগুলোর মূল্য প্রায় ৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা বলে জানিয়েছে বিজিবি।

টেকনাফ ২নং বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্নেল মো: ফয়সল হাসান খান জানিয়েছেন, টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের দমদমিয়া বিওপিতে দায়িত্বরত বিজিবির সদস্যরা মিয়ানমার থেকে একটি ইয়াবার চালান আসার গোপন খবরে ঘটনাস্থলে অবস্থান নেয়।

এক পর্যায়ে মিয়ানমারের লালদ্বীপ হয়ে নাফ নদী পার হয়ে একটি নৌকা বাংলাদেশে প্রবেশ করে। এসময় দায়িত্বরত বিজিবি সদস্য নৌকায় নিয়ে আসা লোকদের অভিমুখে এগিয়ে গেলে পাচারকারীরা বিজিবি সদস্যদের উপর অতর্কিতভাবে গুলি চালায়।

আত্মরক্ষার্থে বিজিবি সদস্যরাও পাল্টা গুলি করে। গোলাগুলির এক পর্যায়ে পাচারকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশী করার সময় এক যুবককে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এবং ১ লাখ ২০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি দেশীয় তৈরী এলজি বন্দুক, দুই রাউন্ড তাজা কার্তজ ও একটি ধারালো কিরিচ উদ্ধার করা হয়।

একইসাথে গুলিবিদ্ধ যুবককে প্রথমে টেকনাফ স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে টেকনাফ থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে বিজিবি বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছে বলেও জানান তিনি।