মাহমুদ উল্লাহ্‌
বিজনেস করেসপন্ডেন্ট

বিকেএমইএ ঢাকা কার্যালয়ে বিকেএমইএ ও আইটিএমএফ এর মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠক। ছবি: বিকেএমইএ

বাংলাদেশের নীট খাতের টেকসই উন্নয়ন, নেটওয়ার্কিংসহ এ খাতের সামগ্রিক উন্নয়নে বিকেএমইএ কে সহযোগিতায় আগ্রহী ইন্টারন্যাশনাল টেক্সটাইলস ম্যানুফ্যাকচারার্স ফেডারেশন (আইটিএমএফ)। এ লক্ষ্যকে সামনে রেখে আইটিএমএফের সদস্য হওয়ার জন্য বিকেএমইএয়ের প্রতি আহ্বান জনিয়েছেন আইটিএমএফের প্রেসিডেন্ট ও ইয়াংওয়ান কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান এবং সিইও কিহাক জুং। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে বিকেএমইএ ঢাকা কার্যালয়ে বিকেএমইএ ও আইটিএমএফের মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ কথা জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিকেএমইএয়ের প্রথম সহ-সভাপতি মনসুর আহমেদ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন আইটিএমএফের বোর্ড সদস্য অ্যান্ড্রু ম্যাক ডোনাল্ড, বিকেএমইএয়ের দ্বিতীয় সহ-সভাপতি ফজলে শামীম এসহান, পরিচালক মোস্তফা জামাল পাশা, শহীদ উদ্দিন আহমেদ আজাদসহ বিকেএমইএ ও আইটিএমএফের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

আইটিএমএফ বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পের উদ্যোক্তাদের সুবিধা অসুবিধা তুলে ধরার ক্ষেত্রে বড় প্ল্যাটফর্ম উল্লেখ করে আগামী অক্টোবরে পর্তুগালে আইটিএমএফ এর আন্তর্জাতিক সম্মেলনে বিকেএমইএ কে আমন্ত্রণ জানান আইটিএমএফ প্রেসিডেন্ট কিহাক জুং। শুধু তাই নয় যেহেতু বাংলাদেশ নীটওয়্যার বাণিজ্যে বিশ্বে দ্বিতীয় বৃহত্তম তাই আন্তর্জাতিক পরিসরে ক্রেতাগোষ্ঠির সাথে বিদ্যমান বিভিন্ন সমস্যা নিয়েও কাজ করতে চায় আইটিএমএফ।

বিকেএমইএ বিশ্বের বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামের সাথে কাজ করে আসছে। ফলে দেশের নীট শিল্পকে আরো বিস্তৃত পরিসরে নিয়ে যেতে আইটিএমএফের সাথে কাজ করতে আগ্রহী বিকেএমইএ। অগ্নি, বৈদ্যুতিক ও অবকাঠামোগত সনদের ক্ষেত্রে বিভিন্ন সংস্থা কর্র্তৃক কারখানা মালিকদের হেনস্তার বিষয়টি আইটিএমএফের প্রতিনিধি দলের কাছে তুলে ধরেন বিকেএমইএ নেতারা। সেই সাথে আইটিএমএফের সাথে ভবিষ্যতে কাজ করার ক্ষেত্রে আজকের এই সভা নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন বিকেএমইএ নেতারা।