সাংবাদিকদের সাথে কথা বলছেন মন্ত্রী।

বিএনপি স্থানীয় সরকারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে না এলে আরো বড় ধরনের ভুল করবে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

তিনি বলেন, বিএনপি যেহেতু একটি রাজনৈতিক দল তাই তাদের উচিত নির্বাচনে অংশ নেয়া। বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলে তারা নির্বুদ্ধিতার পরিচয় দেবে। নির্বাচনে অংশ না নিলে বিএনপি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী ১৮ ফেব্রুয়ারি রবিবার সোমবার দুপুরে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।।

এর আগে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধের বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাত করে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের নিহত সদস্যদের রূহের মাগফেরাত কামনা করেন।

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে মন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন।

মন্ত্রী আরও বলেন, দেশ-জাতি ও মানুষের প্রতি আন্তরিকতা এবং ভালোবাসা যদি একটি সংগঠনের থাকে, তাহলে স্বাভাবিকভাবে এ সমস্ত স্থানীয় সরকার নির্বাচন গুলোতে তাদের অংশ গ্রহণ করা উচিত। বিএনপি যদি সত্যিকারে দেশ প্রেমিক এবং বাংলাদেশের উন্নতি চায় তাহলে কেন তারা নির্বাচন থেকে সরে থাকবেন? বিএনপিকে নির্বাচনে আসতে বিভিন্নভাবে উদ্যোগ নেযা হচ্ছে। তবে নির্বাচনে আসা না আসা তাদের রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত।

তিনি আরও বলেন, সরকার নারীদের উন্নয়নে এবং নারী কল্যাণে নানা ধরনের প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এর ফলে সমাজের পিছিয়ে থাকা নারীরা আত্মকর্মসংস্থানের মাধ্যমে নিজেদের ভাগ্য বদলাতে পারবেন।

এ সময় পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব মো. কামাল উদ্দিন তালুকদার, প্রধান প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুস সালাম মন্ডল, মজিবুর রহমান, গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী এমদাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, গোপালগঞ্জ এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী একে ফজলুল হক, গোপালগঞ্জ পৌরসভার মেয়র কাজী লিয়াকত আলী লেকু, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যানগোজী গোলাম মোস্তফা, পৌরসভার মেয়র শেখ আহম্মেদ হোসেন মির্জা, সাবেক মেয়র ইলিয়াস হোসেন সরদারসহ স্থানীয় সরকার বিভাগের বিভিন্ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালকগণ ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে মন্ত্রী বঙ্গবন্ধু ভবনে রক্ষিত পরিদর্শন বইতে মন্তব্য লেখেন এবং স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন।

বিকেলে মন্ত্রী কোটালীপাড়ায় বাপার্ডে এলজিইডি কর্তৃক বাস্তবায়িত কোটালীপাড়া উপজেলার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেব উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।

মোজাম্মেল হোসেন মুন্না/গোপালগঞ্জ/এমএআরএস/জেবি