আদালত। প্রতীকী ছবি

হবিগঞ্জ জেলার বাহুবলে সুমী আক্তার নামের এক স্কুলছাত্রীর বাল্যবিয়ে পণ্ড করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

একই সাথে বাল্যবিয়ের আয়োজন করার অপরাধে কন্যার বাবা-মা ও বরকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

বাহুবল উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খ্রিস্টফার হিমেল রিছিল শুক্রবার বিকালে বিয়ে বাড়িতে পৌঁছে বিয়ে বন্ধ করেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কন্যার বাবা-মাকে ৭ দিন ও বরকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) খ্রিস্টফার হিমেল রিছিল জানান, উপজেলার ভাদেশ্বর ইউনিয়নের খোঁজারগাও গ্রামের রমিজ আলীর স্কুল পড়ুয়া মেয়ে সুমি আক্তারের (১৫) বিয়ের দিন ধার্য করা হয় শুক্রবার।

একই এলাকার হাসান আলীর কিশোর ছেলে আফজল মিয়ার (১৭) সাথে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। খবর পেয়ে বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার আয়েশা হকের নির্দেশনায় বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হই।

অভিভাবকদের জিজ্ঞাসাবাদে বাল্যবিয়ের অপরাধের কথা স্বীকার করে উভয় পক্ষ। তাৎক্ষণিক কন্যার বাবা রজিম আলী ও মা জোৎস্না আক্তার এবং বরকে উপজেলায় নিয়ে আসা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কনের বাবা-মাকে ৭ দিন করে ও বর আফজল মিয়াকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।