দুর্ঘটনাকবলিত বাস। ছবি-সংগৃহীত

মৌলভীবাজার জেলার মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতে যাওয়ার পথে বাস উল্টে কমপক্ষে ১৫ জন পর্যটক আহত হয়েছেন। এরমধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় ৬ জনকে উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর আহতদের বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে ।

১২ জানুয়ারি শনিবার দুপুর ১টার দিকে কাঁঠালতলী-মাধবকুণ্ড সড়কের গৌরনগর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে বাসের চালক পালিয়ে গেছেন।

দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন-ছাতক শিমুলতলা প্রাইমারী স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মুবিন, শিক্ষিকা খালেদা ইয়াছমিন, আজিজুন নাহার, মন্ডলিভোগ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হেলালুল ইসলাম, খালেদ মিয়া, নাবিহা জামান, প্রদীপ্ত কুমার চক্রবর্তী, হারিছুন নাহার, পারুল সেনাপতি, আনিকা তাহসিন, আব্দুল মমিন, লুৎফুর রহমান, আবু তোরাব ও সালেখা আক্তার।

পুলিশ, হাসপাতাল ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার শিমুলতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মন্ডলীভোগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকারা বাসযোগে মাধবকুণ্ডে আনন্দ ভ্রমণে যাচ্ছিলেন। বাসটি কাঁঠালতলী-মাধবকু-সড়কের গৌরনগর এলাকায় পৌঁছলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে (সিলেট জ-০৪-০১৬৯) রাস্তার পাশের জমিতে পড়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

বড়লেখা থানার উপ-পরিদর্শক শরীফ উদ্দিন দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত ৬জনকে উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকিরা উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। ঘটনার পর চালক পালিয়েছে। মামলা হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
আজকের পত্রিকা/ শায়েল/১২/০১/২০১৯