হাসপাতালে মরদেহ দেখতে উৎসুক জনতার ভিড়। ছবি : সংগৃহীত

বরিশাল জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলায় বাসের ধাক্কায় ৫জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও সাতজন।

বাবুগঞ্জ উপজেলার তেতুঁলতলা এলাকার বরিশাল-বানারীপাড়া সড়কে ২২ মার্চ শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনায় হতাহতরা সবাই মাহেন্দ্র যাত্রী।

নিহতরা হলেন- শীলা হালদার (২৪), মানিক সিকদার (৪০), খোকন (৩৫), সো‌হেল (২৫) ও ৫০ বছর বয়সী এক অজ্ঞাত নারী।

বরিশাল বিমানবন্দর থানার ওসি আব্দুর রহমান মুকুল দুর্ঘটনার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। জানা যায়, বানারীপাড়া থেকে বরিশালগামী একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে বিপরীতমুখী একটি মাহেন্দ্রর মুখোমুখি সংষর্ষ হলে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

নিহত শীলার গ্রামের বাড়ি ঝালকাঠি। তিনি বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন কলেজের মাস্টার্সের গণিত প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিলেন বলে জানা গেছে।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার ইউনুস আলী জানিয়েছেন, মাহেন্দ্রটি যাত্রী নিয়ে ব‌রিশাল থে‌কে বানারীপাড়ার দি‌কে যা‌চ্ছিল। পথে গড়িয়ারপাড় এলাকাধীন তেঁতুলতলা নামক স্থানে স্বরুপকা‌ঠি থে‌কে ব‌রিশালগামী দুর্জয় পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে মাহেন্দ্রর মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

এতে মাহেন্দ্রটি দুমড়ে মুচড়ে রাস্তার পাশে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই কলেজছাত্রী শীলার মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে যান। এসময় জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক মানিক ও খোকনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা‌হেন্দ্রচালক সো‌হেল ও ৫০ বছর বয়সী অজ্ঞাত নারী মারা যান।

আহত অন্যদের হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আহতরা হলেন- দুলাল হাওলাদার (৩৫), তন্নি আক্তার (১৭), শিশু তাইয়ুম (৭), তার মা পারভীন বেগম (৩০), সুমন (২৫) ও সাত বছর বয়সী এক শিশু।

আহতদের বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আজকের পত্রিকা/এমএআরএস