হবিগঞ্জের মাধবপুরে তানিয়া আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধু বিষ পান করে আত্মহত্যা করেছে।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্রে থেকে জানা যায়, উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের নিজনগর গ্রামের শাহজাহান ভূইয়ার মেয়ে মোছাঃ তানিয়া আক্তারের সঙ্গে বিয়ে হয় মালঞ্চপুর গ্রামের আব্দুল মিয়ার প্রবাসী ছেলে আল আমিনের।কিন্ত বিয়ের পর কিছু দিন তাদের সংসার সুখে কাটলেও মেয়ের একাউন্টে টাকা জমা না রাখায় আলমিনের পরিবারের সাথে মেয়ের বাবার কোন্দল সৃষ্টি হয়।

গত ফেব্রুয়ারি মাসের ১৬ তারিখ ছুটি শেষে আলামিন বিদেশ পাড়ি জমালে মেয়ের বাবার সাথে তাদের পরিবারের সম্পর্ক আরোও অবনতি হতে থাকে। এরপর থেকে প্রায় ছয় মাস তানিয়াকে স্বামীর বাড়িতে যেতে দেয়নি তার বাবা।

তাছাড়া ওই স্বামী কে ডিভোর্স দিতে প্রতিনিয়ত তানিয়াকে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে তার বাবা।

তানিয়া তার স্বামীকে ডিভোর্স দিতে অস্বীকৃতি জানালে প্রতিনিয়তই তানিয়াকে অশ্লীল ভাষা গালিগালাজ করত তার বাবা।

এছাড়া শাহজান ভুইঞা গত বছর তার আপন ভাগ্নির মেয়েকে দ্বিতীয় বিয়ে করিলে প্রথম স্ত্রী ও মেয়ে তানিয়ার সাথে প্রায়ই খারাপ আচরণ করত। এই বিষয় টি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল।

বাবার ওই সব আচরণ সহ্য করতে না পেরে
২৬ জুলাই রবিবার ভোর রাতে তানিয়া বাবার বাড়িতে বিষপান করে ছটফট করতে থাকলে বাড়ির লোকজন তানিয়া কে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করেন।

পরদিন সোমবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তানিয়ার মৃত্যু হয়।

তানিয়ার শশুর জানায়, আমার পুত্রবধূ কবে বিষ খেয়েছে এবং কবে মারা গেছে তা আমাদেরকে তানিয়ার পরিবার থেকে জানানো হয় নি।

আমার ছেলে ধর্মঘর বাজারের একজন ফার্মেসির ব্যবসায়ী।

আমার ছেলেকে দোকানের ভিতরে জোরপূর্বক ভাবে তানিয়ার চাচা লোকমান ভুইঞা আটকে রেখে নির্যাতন করে পরবর্তীতে চৌকিদার কুদ্দুস মিয়াকে পাহাড়াদার বসিয়ে দা, বল্লম, লাঠিসোঁটা নিয়ে লোকমানসহ তার সন্ত্রাসী বাহিনী আমার বাড়িতে এসে আমার কাছ থেকে দশ লাখ টাকা আদায় করে নিবে বলে হুমকি প্রদান করে আমাকে সাথে করে উঠিয়ে নিয়ে যায়।

পরে ১নং ধর্মঘর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সামছুল ইসলাম কামাল সাহেব আমাদের কে উদ্ধার করেন।

কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মুর্শেদ আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তানিয়াকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

সোমবার বিকাল ৩.৩০ মিনিটে ময়নাতদন্ত শেষে রাত ৮.৩০ টা তার বাবার পারিবারিক কবরস্থানে তানিয়াকে দাফন করা হয়।

  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    5
    Shares