বানিয়াচংয়ে ফজল হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার

বানিয়াচংয়ে ছুরিকাঘাতে যুবক ফজলু (২১) হত্যা মামলার প্রধান আসামী সালমান (১৮) কে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারের পর আদালতে খুনের ঘটনায় স্বীকারোক্তীমুলক জবানবন্দী দিয়েছে সালমান।

গত ৯ নভেম্বর ২০১৯ রাতে তাকে গ্রেফতার করেন বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ রঞ্জন কুমার সামন্তের নেতৃত্বে এসআই লিটন দাস ও সঙ্গীয় ফোর্স। নিহত ফজল মিয়া উপজেলার ৮ নং খাগাউড়া ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামের মৃত বজলু মিয়ার পুত্র। গ্রেফতারকৃত সালমান হরিপুর গ্রামের ফুল মিয়ার পুত্র।

খাগাউড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই লিটন দাস জানান, অভিযোগে প্রকাশ গত ৬ নভেম্বর সন্ধায় হরিপুর গ্রামের সাদেক মিয়ার দোকানের সামনে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে ফজল মিয়া ও সালমান বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে সালমান ও তার লোকজন মিলে ফজলের উপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে সালমান ফজলের বুকে ও কানের নীচে ছুরিকাঘাত করে। পরে গুরুতর আহত ফজল মিয়াকে স্থানীয়রা হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতলে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার ফজলকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে গত ৯ নভেম্বর সকালে নিহত ফজলের পিতা বজলু মিয়া ঘাতক সালমানকে প্রধান আসামী করে বানিয়াচং থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা করার ১২ ঘন্টার মধ্যেই খুনি সালমানকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। গ্রেফতারের পর সালমানকে গতকাল ১০ নভেম্বর আদালতে হাজির করলে সে দোষ স্বীকার করে স্বীকারোক্তী মুলক জবানবন্দী দেয়।

-সুজন মিয়া/বানিয়াচং