এম. এ. আর. শায়েল
সিনিয়র সাব এডিটর

বানিয়াচংয়ে ডিজিটাল দিবসের র‌্যালি।

“সত্য মিথ্যা যাচাই আগে ইন্টারনেটের শেয়ার পরে” এ প্রতিপাদ্যকে গুরুত্ব দিয়ে আলোচনা সভা, র‌্যালী, চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগীতা, কুইজ, প্রমান্য চিত্র প্রদর্শন ও বর্নাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে বানিয়াচংয়ে জাতীয় ডিজিটাল দিবস ২০১৯ উদযাপন করেছে উপজেলা প্রশাসন।

এ উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় বানিয়াচং উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং তথ্য ও যোগাযোগ অধিদপ্তর এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহযোগীতায় উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মামুন খন্দকারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় মোঃ মামুন খন্দকার বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সোনার বাংলা গড়তে হলে ইন্টারনেটের সঠিক প্রযোগ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী ও তার সুযোগ্য পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের প্রচেষ্ঠায় বাংলাদেশের প্রতিটি অফিস আদালতে এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডিজিটাল পদ্ধতি অনলাইন সেবা চালু হয়েছে। বিদ্যালয়ে ভর্তি কার্যক্রম, মাল্টি মিডিয়া ক্লাসরোম, পুলিশ প্রশাসনে অনলাইন জিডি, ভূমি নামজারীসহ অসংখ্য সেবা বর্তমানে ঘরে বসেই অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে।

বক্তব্য রাখছেন বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার খন্দকার মামুন।

তিনি বলেন ৩৩৩ নাম্বারে কল করে ১০৬ টি সেবা পাওয়া যায়। ১০৬ তে কল করে দুর্নীতি দমন কমিশনে অভিযোগ করা, ১০৯ নাম্বারে কল করে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ সেবা, ৯৯৯ পুলিশের সহযোগীতা নেওয়া যায়।

সভায় পরীক্ষামুলকভাবে ৩৩৩ নাম্বারে কল করে বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরীর মুঠোফোন নাম্বার তাৎক্ষনিক নেয়া হয়। মামুন খন্দকার আরো বলেন, ইন্টারনেটের কারনে একটি মহল গুজব সৃষ্টি করে দেশে বিশৃংখলা সৃষ্টি করে। তাই কোনকিছু শেয়ার করার আগে সত্য-মিথ্যা যাচাই করে শেয়ার করতে হবে। মানহানিকর ও বিশৃংখলা সৃষ্টির কারন হয় এমন কিছু শেয়ার করলে সরকারের প্রচলিত আইনে বিচার করার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সর্বস্তরের জনগণ ও শিক্ষার্থীদের তিনি আহ্বান জানিয়ে বলেন গুজবে সারা না দিয়ে প্রকৃত চিত্র আমরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে শেয়ার করব। এবং সরকারের প্রদত্ত অনলাইন সেবার নাম্বারে কল করে তাৎক্ষনিক সেবা নিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমানে সহযোগীতা করতে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।

সভায় বিভিন্ন নাম্বারে কল করে সেবা পাওয়ার উপরে নির্মিত প্রামান্য চিত্র বড় পর্দায় প্রদর্শন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মতিউর রহমান খান, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কাউছার শোকরানা, প্রভাষক রহমত আলী, উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাইফুল ইসলামসহ বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের কর্মকর্তা, সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ, শিক্ষক শিক্ষিকা, শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০ টায় ডিজিটাল দিবস উপলক্ষে বানিয়াচং উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একটি বর্নাঢ্য র‌্যালী বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে।

জীবন আহমেদ লিটন/বানিয়াচং